শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
শব্দহীন কবিতার অবয়ব ভাটিবাড়ী লোকনাট্য দলের আহবায়ক কমিটি গঠন অনুষ্ঠিত মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত পাটগ্রাম তাহেরা বিদ্যাপীঠে বার্ষিক ক্রীড়া, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার মাতৃভাষা দিবসের শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত সুলতানুল আউলিয়া, ইনসানে অলীয়ে কামেল হযরত শাহ্ নওগজি (রহঃ) এর বাৎসরিক মহা পবিত্র ওরছ মোবারক লালমনিরহাটে নবনির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য অ্যাড. মোঃ মতিয়ার রহমান এর সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত লালমনিরহাট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালক পদের ২১টি মনোনয়নপত্র জমা ভাটিবাড়ী আদর্শ ইজিবাইক মালিক কল্যাণ সমিতির নব নির্বাচিত সভাপতি/ সম্পাদকসহ কার্যকরী পরিষদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত লালমনিরহাট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপনির্বাচন এর স্থগিতের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ
বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত লালমনিরহাটের জনজীবন

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত লালমনিরহাটের জনজীবন

সর্পিল গতিতে বয়ে যাওয়া তিস্তা ও ধরলা নদীর তীরে অবস্থিত লালমনিরহাট জেলাটি রংপুর বিভাগের অন্তর্গত। বন্যার প্রকোপ প্রতিবছরই এ এলাকায় পড়ে এবং ক্ষতিগ্রস্ত হয় এলাকার মানুষ। কিন্তু এবারের বন্যা স্মরণকালের ভয়াবহ এবং করালগ্রাসী রূপ নিয়ে এ জেলার মানুষের সামনে আবির্ভূত হয়েছে। বন্যার ভীষণতায় মানুষ শুধু আতঙ্কিত হয়নি, হয়ে পড়েছিল হতবিহ্বল। নদীর পাড় ভেঙেছে, বৃক্ষ উপড়ে গেছে, রাস্তা ভেঙেছে, মাঠের পর মাঠ যেখানে ফলে সোনালী ফসল, সব ডুবে যায় বিশাল জলরাশির তলে। মনে হয় যেন দিগন্তজোড়া নদী, মাঝে মাঝে বাড়িগুলোকে দূর থেকে দেখে মনে হয় সমুদ্রের মাঝে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র দ্বীপ। এ অবস্থায় মানুষের আশ্রয় নেওয়ার জায়গা, প্রাণ বাঁচানোর মতো খাদ্য, চিকিৎসার ঔষধ, শিশুদের জন্য পর্যাপ্ত খাদ্য ব্যবস্থা করতে হবে। সর্বনাশা, সর্বগ্রাসী বন্যায় এ অঞ্চলের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ অভাবনীয়। ঘর-বাড়ি ধ্বংস হচ্ছে, পাকা রাস্তা ধ্বংস হচ্ছে, কাঁচা রাস্তা, পানির প্লাবনে নষ্ট হচ্ছে জমির ফসল। দীর্ঘদিন জমে থাকা দুষিত পানির কারণে শুরু হয়েছিল ডায়রিয়া, উদরাময়, আমাশয়ের মতো রোগ, যা মহামারি আকার ধারণ করেছিল। এসব জটিল রোগের শিকার হয়ে চিকিৎসাধীন হচ্ছেন, তার মধ্যে অধিকাংশই শিশু। স্কুলে পানি উঠছে। ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত লালমনিরহাটের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর মতো মানুষের বড় অভাব। সরকারি সাহায্য-সহযোগিতার নামে যে ত্রাণসামগ্রী দেওয়া হচ্ছে তা পর্যাপ্ত নয়। তাই বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি, স্বায়তশাসিত প্রতিষ্ঠান, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক সংগঠন ও ব্যক্তি উদ্যোগে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করতে হবে। যা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত লালমনিরহাটের জনজীবনে স্বস্তি এনে দিবে। পরিশেষে বন্যার্তদের পাশে যাঁরা সহায়তা হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তাদের প্রতি শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone