শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ২০২৪ এর পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত প্রেসক্লাব লালমনিরহাটের নতুন সদস্য ২০জনের চুড়ান্ত অনুমোদন শব্দহীন কবিতার অবয়ব ভাটিবাড়ী লোকনাট্য দলের আহবায়ক কমিটি গঠন অনুষ্ঠিত মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত পাটগ্রাম তাহেরা বিদ্যাপীঠে বার্ষিক ক্রীড়া, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার মাতৃভাষা দিবসের শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত সুলতানুল আউলিয়া, ইনসানে অলীয়ে কামেল হযরত শাহ্ নওগজি (রহঃ) এর বাৎসরিক মহা পবিত্র ওরছ মোবারক লালমনিরহাটে নবনির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য অ্যাড. মোঃ মতিয়ার রহমান এর সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত
পোস্ট অফিস ও বক্স আছে ঠিকই নেই কোনো চিঠি

পোস্ট অফিস ও বক্স আছে ঠিকই নেই কোনো চিঠি

“নাই টেলিফোন নাইরে পিয়ন, নাইরে টেলিগ্রাম বন্ধুর কাছে মনের খবর কেমনে পৌছাইতাম, বিদেশ গিয়া বন্ধু তুমি আমায় ভুইলোনা, চিঠি দিও পত্র দিও জানাইও ঠিকানারে, জানাইও ঠিকানা, কিংবা চিঠি দিও প্রতিদিন চিঠি দিও, নইলে থাকতে পারবোনা….।” এক সময় প্রায়ই রেডিও স্যাটালাইটে শোনা যেতো এ রকম কতনা কালজয়ী গান। দিন বদলের পালায় এ রকম মনোমুগ্ধকর কালজয়ী গানগুলো আমাদের মাঝ থেকে হারিয়ে গেছে বহু আগেই। সেই সাথে কালের বির্বতনে হারিয়ে যাচ্ছে ডাকযোগে চিঠি পত্রের ব্যবহারও।

 

এক সময় মানুষের সামাজিক যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম ছিলো ফ্যাক্স ও ডাক যোগাযোগ। আজ থেকে প্রায় ১০-১২বছর আগে পাড়া-প্রতিবেশী, আত্মীয়-স্বজন অথবা অতি আপনজন দুর-দুরান্ত থেকে ফ্যাক্স কিংবা ডাকযোগে চিঠি পত্রের মাধ্যমে আত্মীয়-স্বজনের সাথে যোগাযোগ এবং খোঁজ খবর নিতো।

 

আর্থিক লেনদেনও করা হতো ডাকযোগের মাধ্যমে। বাবা-মা, ভাই-বোন, স্ত্রী-পুত্র কিংবা প্রিয় মানুষটি প্রিয়তমার চিঠির অপেক্ষায় থাকতো। প্রিয় মানুষটি অথবা অতি আপন জনের সেই চিঠি হাতে পেয়ে খুশিতে আত্মহারা হতো অপেক্ষাকৃত ব্যক্তিটি।

 

তখনকার দিনে সেই আনন্দ অনুভূতিই ছিলো অন্যরকম। কিন্তু কালের বির্বতনে এখন আর শহর কিংবা গ্রামগঞ্জে ডাকযোগে চিঠিপত্রের তেমন ব্যবহার নেই।

 

বাংলাদেশ এখন অনেক এগিয়ে গেছে। অনেক উন্নত পরিসরে চলছে মানুষের সামাজিক যোগাযোগ ব্যবস্থা। এখন মানুষ ডাকযোগে যোগযোগের মাধ্যম পরিহার করে মোবাইল, ইন্টারনেট, ফেসবুকিং, ই-মেইল, কিংবা কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে আর্থিক লেনদেনসহ নিত্য প্রয়োজনীয় যোগাযোগ করে থাকেন।

 

আর এসবের ব্যবহারও চলছে জোরালো গতিতে। তাই মানুষজন এখন ভুলে গেছেন সেই মানদাতা আমলের ডাকযোগে চিঠি পত্রের কথা।

 

এজন্য এখন গ্রাম-গঞ্জের অনেক স্থানের ইউনিয়নের বাজারে গেলেই দেখা যায় সেখানকার পোস্ট অফিস থাকলেও নেই কোন কার্যক্রম। সেই পোষ্ট অফিসে চিঠিপত্র জমা রাখার বক্স থাকলেও বক্সে নেই কোনো চিঠি।

 

লালমনিরহাট জেলা পোষ্ট অফিসে গিয়ে এমনই একটি চিত্র চোখে পড়ে।

 

দেখা যায়, ওই পোস্ট অফিসের সামনে একটি চিঠিপত্রের বক্স আছে। এভাবেই কালের বির্বতনে ডাকযোগের মাধ্যমে দিনে দিনে হারিয়ে যাচ্ছে চিঠি পত্রের ব্যবহার।

 

মোঃ রশিদুল ইসলাম রিপন, এস এম হাসান আলী, মোঃ হেলাল হোসেন কবির ও হরিপদ রায় হরি বলেন, আগে আমরা চিঠি পাঠাতাম, এখন আর চিঠি পত্র পাঠাতে হয় না। কারণ মুঠোফোনে খুদে বার্তা, ইমো, হোয়াইটচ্যাপ, ম্যাসেঞ্জার, ই-মেইল ব্যবহার করে তথ্য আদান প্রদান করে থাকি। এটি এখন খুবই সহজ মাধ্যম। অল্প সময়ে সহজ সমাধান হয়ে থাকে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone