শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
দুলাভাই এর পরকীয়ায় কুমারী মাতার সন্তান ছিল ডাস্টবিনে

দুলাভাই এর পরকীয়ায় কুমারী মাতার সন্তান ছিল ডাস্টবিনে

হেলাল হোসেন কবির: ময়লা স্তূপ থেকে উদ্ধার হওয়া সেই শিশুটির অবশেষে পরিচয় মিলেছে। জানা গেল দুলা ভাইয়ের সাথে পরকীয়ার ফলে কুমারী মাতা একটি সন্তান জম্ম দিলে লোক সমাজের মানুষের কাছে ঢাকতে শিশুটির মা শিশুটিকে ডাস্টবিনে ফেলে রেখে গিয়েছিল।

 

শিশুটিকে নিয়ে লোমহর্ষক ঘটনা ঘটে গেল লালমনিরহাটে। এ যেন আইয়ামে জাহেলি যুগের চিত্র ফুটে উঠেছে সকলের সামনে। আজকের সমাজে শালি কি আপন বোনের স্বামী অর্থাৎ দুলা ভাই এর কাছে নিরাপদ? সেই প্রশ্নটাও যেন গলায় আটকে যাচ্ছে।

 

অবশেষে পুলিশের মাধ্যমে মূল ঘটনা বেড়িয়ে আসল। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ময়লার স্তূপ থেকে এক নবজাতক কন্যা শিশুকে জীবিত উদ্ধার করেছিল লালমনিরহাট সদর থানার পুলিশ। তার পর থেকে মহিলা পুলিশ সদস্যদের তত্ত্বাবধানে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন শিশুটি। এদিকে অনেকেই শিশুটিকে দত্তক নিতে এগিয়ে আসে । আদালত কাউকে না দিয়ে রাজশাহী জেলার শিশুমনি নিবাসে প্রেরণের নির্দেশ দেন। আদালতের আদেশের পর গত ২৩ ফেব্রুয়ারি লালমনিরহাট পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানার মাধ্যমে রাজশাহী জেলার শিশুমনি নিবাসে প্রেরণ করা হয়। প্রেরণের একদিন পর ২৪ ফেব্রুয়ারি মিলে গেল শিশুটির আসল পরিচয়।

 

লালমনিরহাট সদর থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ১৪ ফেব্রুয়ারি দিনে লালমনিরহাট পৌরসভার খাদ্য গুদামের সামনে ময়লা স্তূপ থেকে এক দিন বয়সি একটি কন্যা শিশুকে উদ্ধার হওয়া করা হয়। সেদিন থেকেই বিভিন্ন ভাবে আসল ঘটনা সামনে আনতে কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ। বিশেষ ডিভাইস ব্যবহার করে সবকিছু নিশ্চিত হওয়ার পর লালমনিরহাট পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানার নির্দেশনা নিয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ-সার্কেল) মারুফা জামানের সহযোগিতায় লালমনিরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহা আলমের ব্যবস্থাপনায়, ২৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় ওসি তদন্ত শহিদুর ইসলাম লালমনিরহাট শহরের সাহেব পাড়া এলাকায় দুলালের স্ত্রী (৪০) ও মেয়ে (১৭) কে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসলে সেখান থেকেই রহস্যের জট খুলে যায়। পরে দিনাজপুর জেলার পার্বতিপুরের নয়ারহাট এলাকার মৃত্য কোরবান আলীর ছেলে জয়নুল সরকার (৩৪) কৌশলে লালমনিরহাট নিয়ে এসে পুলিশ তাকে আটক করতে সক্ষম হয়।

 

পুলিশ সূত্রে আরও জানা যায়, উক্ত কুমারীর আপন বড় বোনের স্বামী জয়নুল সরকার। শালি ও দুলাভাইয়ের পরকীয়ার কারনে গত মে মাসে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কে যুক্ত হয় বলে উভয়ে স্বীকার করেছেন।

 

এদিকে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের একটি সূত্র থেকে জানা যায়, দুলাল হোসেন উক্ত ১৭বছর বয়সী কুমারীকে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি রাত ১২টা ৫০মিনিটে প্রচুর পেট বেথা নিয়ে ভর্তি করান। দুলাল তার মেয়ের কাছে স্ত্রীকে রেখে রাতে বাড়িতে চলে যায়। তার এ্যাবান্ডি সাইটের বেথা ভেবে রাতেই তাকে সেলাইন দেয় চিকিৎসকরা। চিকিৎসা অবস্থায় রাত ২টার দিকে বাথরুমের চাপ দিলে সে বাথরুমে গেলে সেখানে সন্তানটির জম্ম হয়। পরে তার মাসহ ভোরের দিকে হাসপাতাল থেকে কৌশলে পালিয়ে গিয়ে শিশুটিকে ডাস্টবিনে ফেলে চলে যায়।

 

এ ঘটনায় জয়নুল সরকার, কুমারী ও তার মাকে আটক করছে পুলিশ।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone