শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
স্থবির লালমনিরহাটের সাংস্কৃতিক অঙ্গন লালমনিরহাটে ২০২৩-২০২৪ ইং অর্থ বছরে ইউনিয়ন উন্নয়ন সহায়তা খাতের আওতায় সরবরাহকৃত মালামাল বিতরণ অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে সংখ্যালঘুদের নির্যাতন-নিপীড়ন অনতিবিলম্বে বন্ধের দাবিতে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে নদী-নালা, খাল-বিলে ধরা পড়ছে না দেশী প্রজাতির মাছ প্রশ্ন ফাঁস কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকায় লালমনিরহাটের আদিতমারীতে আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতিকে বহিষ্কার! লালমনিরহাটে অ্যাড. মোঃ মতিয়ার রহমান এমপির সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত লালমনিরহাট পৌরসভার ২০২৪-২০২৫ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণা ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ এর উদ্যোগে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে হারিয়ে যাচ্ছে গ্রামীণ ঐতিহ্য মৃৎ শিল্প লালমনিরহাটে বিজিবি মহাপরিচালক কর্তৃক বন্যাদূর্গতদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠিত

১৪৪ ধারা জারী হলেও দুশ্চিন্তায় রোকেয়া বেগম

আলোর মনি রিপোর্ট: লালমনিরহাট জেলার আদিতমারী উপজেলার সারপুকুর ইউনিয়নের পাঠানটারি গ্রামের রোকেয়া বেগমের জমির উপর ১৪৪ ধারা জারী হলেও দুশ্চিন্তায় রোকেয়া বেগম। কখন যেন বাকি ঘরটুকুও ভেঙে নিয়ে যায় প্রতিপক্ষরা।

 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১২ ডিসেম্বর বেলা ১১টার সময় রোকেয়া বেগমের আধাপাকা দোকান ভাঙচুর করে সাফিউল ইসলাম (২৫) গং।

 

উল্লেখিত, তফসিল বর্ণিত জমি দলিল মূলে দীর্ঘদিন থেকে ভোগ দখল করে আসছে রোকেয়া বেগম। বিবাদীরা অন্যায় ভাবে তার নামীয় জমির উপর রাস্তা দাবী করে। মানবিক কারণে আমি ৬ ফুট প্রস্থের একটি রাস্তা দিয়েছি কিন্তু বিবাদীরা ১২ ফুট প্রস্থের একটি রাস্তা চায়। উক্ত বিষয় নিয়ে বিবাদীপক্ষের সহিত দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। এর জের ধরে সামিউল ইসলাম গং হাতে লাঠিসোটা নিয়ে আমার জমিতে প্রবেশ করে আমার আধাপাকা দোকান ঘর ভাঙচুর করে এক লক্ষ টাকা ক্ষতি সাধন করে। আমার স্বামী সহ বাধা দিতে গেলে বিবাদীরা আমার স্বামীকে খুন জখমের হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেয়। বিবাদীরা প্রভাবশালী হওয়ায় আমাকে বিভিন্ন প্রকার ভয় ভীতি প্রদর্শন করে আসছে।

 

রোকেয়া বেগম সাংবাদিকদের বলেন, কোর্টে মামলা করার পর উক্ত জমিতে ১৪৪ ধারা জারী হয়। ১৪৪ ধারা জারী হওয়ায় বিবাদীরা আমার উপর আরো ক্ষিপ্ত হয় এবং বিভিন্ন লোক মারফতে বলে বাকিটুকুও ভেঙে ফেলে দিবো তোর যা করার করিস।

 

এ বিষয়ে আদিতমারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোক্তারুল ইসলাম বলেন, উক্ত জমিতে ১৪৪ ধারা জারী হয়েছে। আদালতের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তি হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone