শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটে কয়েকদিনের বৃষ্টিপাতে কপাল পুড়ছে মরিচ চাষির! খবর প্রকাশের পর জনস্বার্থে কেটে ফেলা হলো লালমনিরহাটের সেই প্রাচীন বটগাছটির ঝুঁকিপূর্ণ ডাল! লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ২৫সেন্টিমিটার উপরে! লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ১৩সেন্টিমিটার উপরে! লালমনিরহাটে বিদ্যুতের সঙ্গে বন্ধ হয় মোবাইল নেটওয়ার্কও; হতাশায় এলাকাবাসী! লালমনিরহাটে খেলাধুলার মাঠে মাটির স্তূপ! লালমনিরহাটে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উদযাপিত দেশবাসীকে সাপ্তাহিক আলোর মনি’র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা লালমনিরহাটে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা-২০২৪ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে জাতীয় মহাসড়কের ডিভাইডারে ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ড স্থাপন!
পাটগ্রামে ধর্ষণে শিশুর পেটে সন্তান : প্রতিবেশী দাদা গ্রেফতার

পাটগ্রামে ধর্ষণে শিশুর পেটে সন্তান : প্রতিবেশী দাদা গ্রেফতার

মোঃ মাসুদ রানা রাশেদ, লালমনিরহাট:

লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার ষষ্ঠ শ্রেণি পড়ুয়া এক শিশুর (১২) ৩মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার ঘটনায় মোক্তার উদ্দিন ওরফে মোক্তার আলী (৫২) নামে এক প্রতিবেশী দাদাকে গ্রেফতার করেছে পাটগ্রাম থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার ২৬ মে রাতে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে পাটগ্রাম থানায় মামলা করলে ধর্ষণের অভিযোগে মোক্তার উদ্দিনকে গ্রেফতার করে পাটগ্রাম থানা পুলিশ। মোক্তার উদ্দিনের বাড়ি পাটগ্রাম উপজেলার পাটগ্রাম ইউনিয়নের টেপুরগারী এলাকার।

পরে বুধবার ২৭ মে দুপুরে মোক্তার উদ্দিনকে লালমনিরহাট আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এদিকে, ওই শিশুকে পুলিশি হেফাজতে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য বুধবার ২৭ মে দুপুরে লালমনিরহাট সদর ১০০শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশুটি সাংবাদিকদের জানায়, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে তাকে বিয়ে দেওয়ার কথা বলে ধর্ষণ করে আসছিল মোক্তার হোসেন। কিছুদিন আগে তার ঘন ঘন বমি ও খেতে না পারার কারণ খুঁজতে গিয়ে দাদি বুঝতে পারেন সে অন্তঃসত্ত্বা।

শিশুটি সাংবাদিকদের বলে, আমি তো এসব বুঝি নাই, এখন আমার কী হবে? ঘটনার শিকার শিশুটির দাদি সাংবাদিকদের বলেন, একটা বয়স্ক লোক এমন কাজ করবে আমরা এটা ভাবতেও পারিনি। আমার নাতনিই একটা শিশু, এখন ওর পেটের শিশুটির কী হবে? আমি চিন্তায় কুল পাচ্ছি না!

মেয়ের বাবা ঘটনার বিচার চেয়ে সাংবাদিকদের বলেন, এখন আমি কী করবো বুঝতে পারছি না। মেয়েকে নিয়ে কী করবো, আর তার পেটের শিশুটির কী করবো কিছুই বুঝতে পারছি না। পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুমন কুমার মোহন্ত সাংবাদিকদের বলেন, শিশুটি তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা, প্রাথমিক পরীক্ষা-নিরীক্ষায় এটি নিশ্চিত হওয়ার পর তার বাবার অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও সাংবাদিকদের বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি মোক্তার ওই শিশুটিকে বিয়ে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে সাতদিন তার বাড়িতে ধর্ষণ করেছে বলে স্বীকার করেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone