শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
স্থবির লালমনিরহাটের সাংস্কৃতিক অঙ্গন লালমনিরহাটে ২০২৩-২০২৪ ইং অর্থ বছরে ইউনিয়ন উন্নয়ন সহায়তা খাতের আওতায় সরবরাহকৃত মালামাল বিতরণ অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে সংখ্যালঘুদের নির্যাতন-নিপীড়ন অনতিবিলম্বে বন্ধের দাবিতে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে নদী-নালা, খাল-বিলে ধরা পড়ছে না দেশী প্রজাতির মাছ প্রশ্ন ফাঁস কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকায় লালমনিরহাটের আদিতমারীতে আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতিকে বহিষ্কার! লালমনিরহাটে অ্যাড. মোঃ মতিয়ার রহমান এমপির সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত লালমনিরহাট পৌরসভার ২০২৪-২০২৫ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণা ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ এর উদ্যোগে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে হারিয়ে যাচ্ছে গ্রামীণ ঐতিহ্য মৃৎ শিল্প লালমনিরহাটে বিজিবি মহাপরিচালক কর্তৃক বন্যাদূর্গতদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠিত
হাতীবান্ধায় তুচ্ছ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধাকে বেধড়ক প্রহার

হাতীবান্ধায় তুচ্ছ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধাকে বেধড়ক প্রহার

মোঃ মাসুদ রানা রাশেদ, লালমনিরহাট:

 

লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলায় সজনা গাছ তুলতে বাধা দেয়ার ঘটনায় আব্দুর রহমান (৬৮) নামে এক বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত বীর মুক্তিযোদ্ধা বর্তমানে হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য-কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।

 

এ ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার ২ জুন সন্ধ্যায় বীর মুক্তিযোদ্ধা বাদী হয়ে ৩জনকে আসামী করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। এর আগে মঙ্গলবার সকালে হাতীবান্ধা উপজেলার পূর্বসারডুবি গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। অভিযুক্তরা হলেন, হাতীবন্ধা উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের দফছির উদ্দিনের ছেলে মইনুল ইসলাম মুন্না (২৪), আব্বাস আলীর ছেলে ও মুন্নার বাবা দফছির উদ্দিন (৫০) এবং দফছির উদ্দিনের স্ত্রী মমতাজ বেগম (৪৫)। আহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান হাতীবান্ধা উপজেলার পূর্ব সারডুবি গ্রামের মৃত আনছার উদ্দিনের ছেলে। এছাড়া তিনি বড়খাতা ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, ইউনিটের কমান্ডার।

 

হাতীবান্ধা থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বীর মুক্তিযোদ্ধার বাড়ির সামনের যাতায়াতের কাঁচা রাস্তার পাশে কয়েকটি সজনা গাছ রোপণ করে। অভিযুক্তরা মঙ্গলবার সকালে সজনার গাছগুলো তুলে ফেলতে গেলে বাধা দেয় বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার। এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধার ওপর হামলা চালায়। এ সময় বাঁশের লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগে উল্লেখ রয়েছে। পরে বীর মুক্তিযোদ্ধাকে প্রতিবেশী ও স্বজনরা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য-কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানা অফিসার ইনচার্জ ওমর ফারুক সাংবাদিকদের জানান, অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone