শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটে ক্ষতিকারক ইউক্যালিপটাস গাছ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে লালমনিরহাটের বটতলার সড়কবাতি জ্বলে না! লালমনিরহাটের প্রাচীন বটগাছটি হেলে যাচ্ছে! লালমনিরহাটে ব্যবসায়ীর টাকা ছিনতাই চেষ্টা; ২ পুলিশ সদস্য প্রত্যাহার! লালমনিরহাট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতিকে অব্যাহতি লালমনিরহাট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতির বিরুদ্ধে গরু ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে ২লাখ ৪০হাজর টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ! উপকারভোগীর কাছ থেকে মাইক্রোফোন কেড়ে নেওয়ায় ক্ষেপে গেলেন প্রধানমন্ত্রী! লালমনিরহাটে সিজেজি সদস্যদের সাথে নেটওয়ার্কিং মিটিং অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ হস্তান্তর কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটের ঐতিহ্যবাহী মোগলহাট জিরো পয়েন্ট এখন শুধুই স্মৃতি : দর্শনার্থীদের ভিড়
পচা গন্ধে দুর্বিসহ এলাকার পরিবেশ : লালমনিরহাটের সাকোয়া ও সাবরীখানা নদীর তীরে ময়লা আবর্জনার ভাগাড়

পচা গন্ধে দুর্বিসহ এলাকার পরিবেশ : লালমনিরহাটের সাকোয়া ও সাবরীখানা নদীর তীরে ময়লা আবর্জনার ভাগাড়

আলোর মনি ডটকম ডেস্ক রিপোর্ট: লালমনিরহাট জেলার আদিতমারী উপজেলার সাপ্টিবাড়ী ইউনিয়নের সাকোয়া ও লালমনিরহাট পৌরসভার খোঁচাবাড়ী এবং লালমনিরহাট সদর উপজেলার মোগলহাট ইউনিয়নের ফুলগাছ, কোদালখাতা গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া সাবরীখানা নদীর খোরারপুল নামকস্থানে লালমনিরহাট পৌরসভা কর্তৃপক্ষ ড্রেনের সংযোগ করে দেওয়ায় নদীতে ময়লা ও আবর্জনার পচা গন্ধে দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে এলাকার পরিবেশ। ড্রেনের পানির সঙ্গে এসব ময়লা ও আবর্জনা নদীর পানিতে মেশায় দূষিত হয়ে পড়েছে সাবরীখানা নদীর স্বচ্ছ পানি।

 

জানা গেছে, ১৫বছর ধরে লালমনিরহাট জেলার লালমনিরহাট সদর উপজেলার মোগলহাট ইউনিয়নের ফুলগাছ গ্রামের খোরারপুল এলাকায় সাবরীখানা নদীতে লালমনিরহাট জেলা শহরের যাবতীয় ময়লা ও আবর্জনা ড্রেনের মাধ্যমে প্রেরণ করছে লালমনিরহাট পৌরসভা। এলাকাবাসীর বাঁধাকে কর্ণপাত করেনি কর্তৃপক্ষ। বছরের পর বছর ধরে ময়লা ও আবর্জনা ফেলায় এখন ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে সাবরীখানা নদীটি। এতে করে ওই এলাকার দূর্গন্ধ ও নোংরা পরিবেশের সৃষ্টি হওয়ায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীর। নদীর পানির সঙ্গে এসব ময়লা ও আবর্জনা মেশায় নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে মানুষজন। এখনই এসব কর্মকান্ড বন্ধ না হলে সাবরীখানা নদীকে বাঁচানো যাবে না বলে পরিবেশবাদীরা মনে করছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone