শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটে কয়েকদিনের বৃষ্টিপাতে কপাল পুড়ছে মরিচ চাষির! খবর প্রকাশের পর জনস্বার্থে কেটে ফেলা হলো লালমনিরহাটের সেই প্রাচীন বটগাছটির ঝুঁকিপূর্ণ ডাল! লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ২৫সেন্টিমিটার উপরে! লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ১৩সেন্টিমিটার উপরে! লালমনিরহাটে বিদ্যুতের সঙ্গে বন্ধ হয় মোবাইল নেটওয়ার্কও; হতাশায় এলাকাবাসী! লালমনিরহাটে খেলাধুলার মাঠে মাটির স্তূপ! লালমনিরহাটে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উদযাপিত দেশবাসীকে সাপ্তাহিক আলোর মনি’র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা লালমনিরহাটে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা-২০২৪ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে জাতীয় মহাসড়কের ডিভাইডারে ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ড স্থাপন!

পলিথিনের ব্যবসা জমজমাট : নজরদারি নেই প্রশাসনের

আলোর মনি ডটকম ডেস্ক রিপোর্ট: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিবেশ আইনকে তোয়াক্কা না করেই লালমনিরহাট জেলার সর্বত্র পলিথিন ব্যবসার ছড়াছড়ি শুরু হয়েছে।

 

প্রশাসনের তোয়াক্কা না করে কতিপয় সিন্ডিকেট লালমনিরহাট জেলার ৫টি (লালমনিরহাট সদর, আদিতমারী, কালীগঞ্জ, হাতীবান্ধা, পাটগ্রাম) উপজেলার ৪৫টি ইউনিয়ন, ২টি (লালমনিরহাট, পাটগ্রাম) পৌরসভা এলাকায় প্রতিদিন হাজার হাজার টাকার পলিথিন বিক্রি করছে। প্রতিটি ভোক্তাজাত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলোতে পলিথিন ব্যবহার করা হচ্ছে। অথচ প্রশাসন এ ব্যাপারে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। পলিথিন ব্যবসায়ীরা প্রকাশ্যে তাদের কর্মকান্ড পরিচালনা করলেও প্রশাসন এদের দমনে তেমন সক্রিয় নয়। অভিযোগ রয়েছে- আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পলিথিন ব্যবসায়ীদের নীরব সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে। তা না হলে প্রশাসনের নজরদারি নেই কেন?

 

অনুসন্ধানে জানা গেছে, পটের ব্যাগ, কাগজের ব্যাগ, ঝুড়ি ব্যাগ শেষে আবারও পলিথিনের দখলে চলে গেছে বাজারগুলো।

 

ব্যবসায়ীদের দাবী, কাগজ বা পাটের ব্যাগ দিয়ে পণ্য নিতে অনেক ক্রেতা অস্বীকৃতি জানায়। বাধ্য হয়েই দোকানিকে পলিথিন ব্যাগ ব্যবহার করতে হয়। শুধু পলিথিন বিক্রেতাদের দোষ দিয়ে লাভ নেই। ক্রেতার ভূমিকাও ভেবে দেখতে হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone