শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
লালমনিরহাটে চার’শ ছাড়ালো করোনা পজেটিভ রোগীর সংখ্যা, মৃত্যু ৩

লালমনিরহাটে চার’শ ছাড়ালো করোনা পজেটিভ রোগীর সংখ্যা, মৃত্যু ৩

মোয়াজ্জেম হোসেন, লালমনিরহাট:

লালমনিরহাটে আরও ১৯ব্যক্তি করোনা ভাইরাস পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় সর্বোমোট ৪০৬জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাস পজেটিভ শনাক্ত ও ৩জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে জেলা সিভিল সার্জনের কার্যালয়। সংক্রমিতদের মধ্যে রাজনৈতিক নেতা, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, সাংবাদিক সহ বিভিন্ন শ্রেণির পেশার মানুষ রয়েছে।

 

শনিবার রাতে ২ আগষ্ট লালমনিরহাটের ৩৫জন ব্যক্তির পিসিআর ল্যাব টেষ্ট রিপোর্টে ১৯জনের শরীরে করোনা ভাইরাস পজেটিভ শনাক্ত হয়। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন সিভিল সার্জন ডাঃ নির্মলেন্দু রায়।

 

জেলায় করোনা পজেটিভ সংক্রমিত ব্যক্তিদের মধ্যে উল্লেখযোগ্যরা হলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. মতিয়ার রহমান, লালমনিরহাট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সিরাজুল হক, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এরশাদ হোসেন জাহাঙ্গীর, সাবেক সভাপতি আব্দুল খালেক বাবু, বর্তমান জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি শেখ তানভীর আল হুদা, লালমনিরহাট পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী নজরুল ইসলাম তপন, সাপ্তাহিক লালমনিরহাট বার্তা পত্রিকার সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম শফিকুল ইসলাম কানু, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তি কথা সাহিত্যিক ফেরদৌসী বেগম বিউটি, লালমনিরহাট সদর ভূমি অফিসের সহকারী কমিশনার জিএম সারোয়ার, পাটগ্রাম থানার ওসি সুমন কুমার মোহন্ত, টিআইবি’র লালমনিরহাট জেলা সমন্বয়কারী কমল কৃষ্ণ রায়, চিকিৎসক-নার্সসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সাধারণ মানুষ করোনা ভাইরাস পজেটিভ শনাক্ত হয়।

 

সিভিল সার্জনের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২ আগষ্ট শনিবার কভিড-১৯ প্রকাশিত রিপোর্টে সদর উপজেলায় ১৬জন, আদিতমারীতে ১জন ও হাতীবান্ধায় ২জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাস পজেটিভ শনাক্ত হয়। লালমনিরহাট সদর ১০০শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে কর্মরত ৩জন সিনিয়র স্টাফ নার্স, কৃষি ব্যাংক নামুড়ী শাখায় কর্মরত একজন ব্যাংক কর্মকর্তা সহ সরকারি বিভিন্ন অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সাধারণ ব্যবসায়ী রয়েছে।

 

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সহকারী প্রধান পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল মান্নান বলেন, ২ আগষ্ট পর্যন্ত লালমনিরহাট সদরে ১হাজার ৩৩জন, আদিতমারীতে ২৪৭জন, কালীগঞ্জে ৪৩৯জন, হাতীবান্ধায় ৫৬৯জন ও পাটগ্রামে ৫১৭জন ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করে পিসিআর ল্যাবটেষ্টের জন্য রংপুরে পাঠানো হয়।

 

লালমনিরহাট সদরে ৮৫৮জন, আদিতমারীতে ২২৭জন, কালীগঞ্জে ৪২৬জন, হাতীবান্ধায় ৫২৯জন ও পাটগ্রামে ৪৯২জন ব্যক্তির রিপোর্ট পাওয়া গেছে। এতে লালমনিরহাট সদরে ১৯৯জন, আদিতমারীতে ৩০জন, কালীগঞ্জে ৩৬জন, হাতীবান্ধায় ৪৯জন, পাটগ্রামে ৯২জনের শরীরে করোনা ভাইরাস পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে।

 

সিভিল সার্জন ডাঃ নির্মলেন্দু রায় বলেন, জেলায় ২হাজার ৮শ ৫জন ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করে পিসিআর ল্যাবটেষ্টের জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এরমধ্যে ২হাজার ৫৩২জন ব্যক্তির রিপোর্টে ৪০৬জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাস পজেটিভ। ২ আগষ্ট পর্যন্ত সুস্থ্য হয়ে বাড়ী ফিরেছে ২৩৮জন এবং ১৩৫জন ব্যক্তি আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

 

তিনি আরও বলেন, করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়ে ইতোমধ্যে পাটগ্রামে ১জন, হাতীবান্ধায় ১জন ও লালমনিরহাট সদর উপজেলায় ১জন মারা গেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone