শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটে হাতী-ঘোড়া সাজিয়ে ওয়ালটনের বর্ণাঢ্য র‌্যালি লালমনিরহাটে ১৫ মিটার দৈর্ঘ্যের ৩টি গার্ডার ব্রীজ নির্মাণ শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে সর্বজনীন পেনশন মেলা ২০২৪ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটের নিরীহ স্যানেটারী মিস্ত্রী মোঃ জিয়াউর রহমানকে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ! অভ্যন্তরীণ বোরো ধান ও চাল সংগ্রহ ২০২৪ শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ টিআর প্রকল্পের নগদ টাকা বিতরণ অনুষ্ঠিত লালমনিরহাট রেলওয়ে বিভাগে দেশের প্রথম ইঞ্জিন ও কোচ ঘুরানো টার্ন টেবিল নির্মাণ লালমনিরহাটের ঐতিহ্যবাহী সুকান দীঘিতে পদ্মফুল ফুটেছে লালমনিরহাটের ৩টি উপজেলায় স্বতন্ত্র পদপ্রার্থীদের লড়াই! লালমনিরহাটে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে পুতি রাণীর মৃত্যু
লালমনিরহাট সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হেলাল হোসেন কবিরের উন্নয়ন ভাবনা!

লালমনিরহাট সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হেলাল হোসেন কবিরের উন্নয়ন ভাবনা!

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে লালমনিরহাট সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নিজের এলাকার সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে কী ভাবছেন? ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচনে নির্বাচিত হলে এলাকাবাসীর কল্যাণে তিনি কী করবেন? অগ্রাধিকার দিবেন কোন কোন বিষয়গুলোর প্রতি, সামগ্রীক বিষয় নিয়ে লালমনিরহাট সদর উপজেলা পরিষদের সেই ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীর কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল। লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের মকড়া ঢঢ় গাছ গ্রামের বাসিন্দা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সৎ ও যোগ্য মেহনতী মানুষের বলিষ্ট কণ্ঠস্বর কবি ও সাংবাদিক হেলাল হোসেন কবির-এর নির্বাচনী ভাইস চেয়ারম্যান উন্নয়ন ভাবনা দিয়ে “মডেল লালমনিরহাট সদর উপজেলা সংকল্প” প্রতিশ্রুতি তুলে ধরা হলো।

 

পরিচিতিঃ ৯টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে লালমনিরহাট সদর উপজেলা পরিষদ গঠিত। এখানে মোট ভোটার সংখ্যা ২লক্ষ ৮৫হাজার ৫শত ৭২জন। যা চলতি বছরের আগামী ২৯ মে ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদের ৩য় ধাপের সাধারণ নির্বাচন-২০২৪ অনুষ্ঠিত হবে। সেই মোতাবেক এবারের নির্বাচনে লালমনিরহাট সদর উপজেলাবাসীর সমর্থনে নির্বাচনে কবি ও সাংবাদিক মোঃ হেলাল হোসেন কবির বিজয় হলে লালমনিরহাট সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানের দ্বায়িত্ব গ্রহণ করে উক্ত উপজেলাকে সন্ত্রাস, দুর্নীতি, মঙ্গা মুক্ত একটি মডেল লালমনিরহাট সদর উপজেলা হিসেবে গঠন করার লক্ষ্যে তিনি নিরলসভাবে কাজ করবেন। এ লক্ষ্যে যে সকল ক্ষেত্রে তাঁর কাজ করা প্রয়োজন মনে করেন তা নিম্নরূপঃ

 

দারিদ্র্যঃ এ উপজেলার প্রধান সমস্যাগুলোর অন্যতম দারিদ্র্য তথা মঙ্গা। দারিদ্র্য ঘুচাও বৈষম্য রুখো প্রতিশ্রুতির আওতায় ‘একটি বাড়ী, একটি খামার’, আশ্রয়ণ, গৃহায়ন, আদর্শ গ্রাম, ঘরে ফেরা ও বয়স্কভাতা, দুঃস্থ্য মহিলা ভাতা ইত্যাদি প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে তা দূর করা সম্ভব।

কর্মসংস্থানঃ ওয়ার্ড ভিত্তিক বেকার যুবকদের তালিকা তৈরী করে স্বল্প ও দীর্ঘ মেয়াদী বিশেষ প্রকল্প প্রস্তুত করা। সরকারে অধীনে জেলা, উপজেলা ও পৌরসভা এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে স্থানীয় নিয়োগের ক্ষেত্রে লালমনিরহাট সদর উপজেলাবাসীকে অগ্রাধিকার দেয়া। গ্রামীণ এলাকার রাস্তা-ঘাট, সেতু-কালভার্ট ও অবকাঠামোগত উন্নয়নের কাজগুলোকে ওই গ্রাম বা ইউনিয়ন এবং পৌরসভার বেকারদের কর্মসংস্থান নিশ্চিত করা। যুব সমাজের জন্য সরকার ঘোষিত বছরে নুন্যতম ১০০দিনের কর্মসংস্থানের জন্য প্রত্যেক পরিবারের একজন করে কর্মক্ষম বেকার নিয়োগ দেয়া হবে।

দূর্নীতি দমনঃ দূর্নীতির বিরুদ্ধে দূর্নীতি দমন কমিশনের অগ্রযাত্রায় স্থানীয় পর্যায়ে ঘুষ দুর্নীতির বিরুদ্ধে জনমানুষকে সচেতন করা হবে। সমাজের সকল স্তরের ঘুষ দূর্নীতি উচ্ছেদ, অনুপার্জিত আয়, চাঁদাবাজি, কালো টাকা ও পেশিশক্তি প্রতিরোধ ও নির্মূলে কাজ করে যাব।

সুশাসনঃ সন্ত্রাস দূর করে সমাজে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা। প্রচলিত আইন অনুযায়ী সমাজের সকল স্তরের জীবন ও সম্পদের নিরাপত্তা, শান্তি শৃঙ্খলা নিশ্চিত করার জন্য প্রশাসনকে সার্বিক সহযোগিতা করা।

শিক্ষাঃ মান সম্মত শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করনের লক্ষ্যে প্রত্যেক স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা, এলাকার সমাজসেবক, ব্যবসায়ী ও নির্বাচিত প্রতিনিধিদের নিয়ে স্থানীয় শিক্ষা উন্নয়ন কমিটি গঠন করা হবে। উক্ত কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে বাস্তবমূখী শিক্ষা কার্যক্রম চালু করা হবে।

স্বাস্থ্যঃ সবার জন্য সুস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সরকারি ও এনজিওগুলোর সুসম্পর্ক স্থাপন করে জনসাধারণকে উন্নত স্বাস্থ্য, খাদ্য, পুষ্টি, পরিস্কার- পরিচ্ছন্নতা সম্পর্কে সচেতন করা হবে।

কৃষিঃ লালমনিরহাট সদর উপজেলাকে একটি স্বনির্ভর কৃষি অঞ্চল গড়ে তোলা ও কৃষির উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে কৃষিতে আধুনিকায়ন, উন্নত প্রযুক্তির ব্যবহার, সকল প্রান্তিক চাষীকে সাশ্রয়ী মূল্যে যথাসময়ে উন্নত জাতের বীজ, পর্যাপ্ত সার ও কীটনাশক সরবরাহের ব্যবস্থা নিশ্চিত করা।

শিল্প ও বাণিজ্যঃ শিল্প ও বাণিজ্য পশ্চাৎপদ লালমনিরহাট সদরকে একটি ব্যবসায়িক কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে রেল ও সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নসহ মোগলহাট স্থলবন্দর প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ব্যাপক জনমত গড়ে তোলা এবং সংযোগ স্থাপন করা হবে।

যোগাযোগ ও ভৌত অবকাঠামোঃ পরিবহন সড়ক নির্মাণ, সংস্কার ও প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। লালমনিরহাট সদর উপজেলার বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, মসজিদ, মন্দিরসহ রাস্তা-ঘাট, হাট-বাজার, সেতু-কালভার্ট ইত্যাদি সংস্কার ও নির্মাণ করা হবে। বন্য্যা ও নদী ভাঙ্গন রোধে বাঁধ নির্মাণের ব্যবস্থা করা হবে।

মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাঃ রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতিপ্রাপ্ত বীরমুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের স্থানীয়ভাবে মর্যাদা উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত ও সম্মানিত করা।

সাহিত্য, সংস্কৃতি ও ক্রীড়াঃ সকল সাহিত্য, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সংগঠনকে নিয়ে উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড পরিচালিত করা হবে।

নারী, প্রবীণ ও প্রতিবন্ধী কল্যাণঃ অসহায় প্রবীণ, স্বামী পরিত্যাক্তদের সমাজে প্রতিষ্ঠিত করণ, কল্যাণ ভাতা ও প্রবীণদের জন্য প্রবীণ নিবাস প্রতিষ্ঠা করা প্রতিবন্ধীদের জন্য স্বাবলম্বী কার্যক্রমে সম্পৃক্ত করা হবে।

আইন-শৃঙ্খলা উন্নয়নঃ আইন-শৃঙ্খলা এবং গ্রামীণ সালিশী কাজে প্রশাসনকে সহায়তা করা।

 

এছাড়াও কবি ও সাংবাদিক মোঃ হেলাল হোসেন কবির লালমনিরহাট উন্নয়নে বিভিন্ন দাবির বাস্তবায়ন চাই… সামাজিক সংগঠন অতিক্রম লালমনিরহাট এর আহবায়ক হিসেবে। তাঁর দাবিগুলো হলো- প্রস্তাবিত স্থান মহেন্দ্রনগরে অর্থনৈতিক অঞ্চল বাস্তবায়ন করতে হবে; পরিবেশবান্ধব তিস্তা মহাপরিকল্পনার বাস্তবায়ন চাই; মোগলহাট শুল্ক স্থলবন্দর স্থাপনের ঘোষণার বাস্তবায়ন করতে হবে; লালমনিরহাট থেকে অভ্যন্তরিণ বিমান যাতায়াত চালু করতে হবে; রংপুর-লালমনিরহাট-বুড়িমারী ৪ লেন সড়ক করতে হবে। তিস্তা নদীর উপর ব্রডগেজ রেলসেতু তৈরি করতে হবে; যুব উন্নয়ন ও টিটিসির শিক্ষার্থীদের সরকারিভাবে বিদেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করতে হবে; লালমনিরহাট শহরে আইসিটি পার্ক দ্রুত বাস্তবায়ন চাই; ধরলা নদীর দুই ধারে স্থায়ী নদী শাসন করতে হবে; লালমনিরহাটে কৃষকদের জন্য সরকারি বাজার চালু করতে হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone