শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটে বৈষম্যমূলক কোটা ব্যবস্থার সংস্কারের যৌক্তিক দাবীতে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দের বিক্ষোভ মিছিল ও অবস্থান কর্মসূচি! ভারতের সিকিম রাজ্যের প্রাক্তণ শিক্ষা মন্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার! লালমনিরহাটে ২ ছাত্রলীগের নেতার পদত্যাগ! লালমনিরহাটে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও সন্তান কমান্ডের মানববন্ধন ও স্মারক লিপি প্রদান লালমনিরহাটে পবিত্র আশুরার প্রস্তুতি চলছে লালমনিরহাটের পাটগ্রামে জমি জবর দখলের চেষ্টায় থানায় অভিযোগ! লালমনিরহাটে জেলা প্রেস ক্লাব লালমনিরহাট এর কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে জেলা ট্রাক, ট্যাংকলড়ী ও কাভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সম্পাদকে বহিস্কার! লালমনিরহাটে বিএসটিআই এর মোবাইল কোর্টের অভিযানে ৩৫হাজার টাকা জরিমানা
আদিতমারী থানার মাঠে সূর্যমুখীর স্নিগ্ধ হাসি

আদিতমারী থানার মাঠে সূর্যমুখীর স্নিগ্ধ হাসি

আলোর মনি রিপোর্ট: বসন্ত এলেই র্জীণ প্রকৃতি তার নব রূপের পসরা উন্মুক্ত করে দেয়। শীতের কুয়াশা শেষে গাছে গাছে পাতা ঝড়ার ধূম পড়ে যায়। হলুদের বর্ণছটায় সবুজ প্রকৃতির সাথে সাথে মানব মন ও সবুজ আর হলদে আভায় নিজেকে মেলে ধরতে চাইছে। আর সেই জন্যই বসন্তে এমন দৃশ্য টানছে সৌন্দর্য পিপাসুদেরও। প্রকৃতিতে অসাধারণ এক রূপবান উদ্ভিদ সূর্যমুখী। পাগল করা সুন্দর তার ফুল। ফুল ও প্রকৃতিপ্রেমী যে কেউ এই ফুলের নান্দনিক হলদে আভায় মুগ্ধ না হয়ে পারবে না। দূর থেকে দেখলে মনে হবে হলুদ গালিচা বিছিয়ে রাখা হয়েছে। কাছে গেলে চোখে পড়ে সূর্যমুখী ফুল। সূর্যের মতই সূর্যমুখী হাসে, আর তার হাসিতে প্রকৃতি অপরূপ রূপে সাজে। ফুলগুলো বাতাসে দোল খেয়ে যেন আমন্ত্রণ জানাচ্ছে সৌন্দর্য উপভোগ করার। হলুদ রং এর এসব ফুল মুখ করে আছে সূর্যের দিকে।
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক হেলাল হোসেন কবির বলেন, ফুল সবারই পছন্দ। ফুলের সৌন্দর্য তৈরি করে এক মনোমুগ্ধকর দৃশ্য। দিন যায়, মাস যায়, বছর যায় তবুও এই দৃশ্যগুলো অকপটে স্মৃতিতে রয়ে যায়। সৌন্দর্যের দিক থেকে ফুলের মধ্যে সূর্যমুখী অন্যতম। আর এই সূর্যমুখীর অপরুপ সৌন্দর্যে সেজে উঠেছে আদিতমারী থানা।
আদিতমারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোকতারুল ইসলাম থানার ভেতরে পতিত জায়গায় সূর্যমুখী ফুলের চাষ করেছেন। সূর্যমুখীর পাশাপাশি নানা দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ফুলের সমারোহে থানার আঙ্গিনাকে করে তুলেছেন বিশাল কাননে। প্রতিটি গাছে ফুলফুটে বসন্তের হাওয়া বইছে। থানায় খালি জায়গায় সূর্যমুখী ফুলের চাষ করে সবাইকে তিনি তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। সূর্যমুখী বাগানে সারি সারি লাগানো ফুলগাছ। হলুদ ফুল আর সবুজ গাছের অপরূপ দৃশ্য দেখলেই দুই চোখ জুড়িয়ে যায়। প্রতিদিন থানায় আগতগণ এ মনোরম দৃশ্য দেখছে।
দেখা গেছে, সবুজ গাছে ফুটে আছে সূর্যমুখী ফুল। প্রতিনিয়ত মিষ্টি হলুদ রঙের সূর্যমুখী আপনাকে সাদর সম্ভাষণ জানাবে মাথা নেড়ে। থানায় লাগানো আছে বিভিন্ন ফুল ও ফলের গাছ। আম্র মুকুলের সুবাসিত সুঘ্রাণ ও বিভিন্ন ফুলের মন মাতোয়ারা গন্ধে মুখরিত এ পরিবেশ। ফুল ও ফলের মিলন মেলায় এ যেন এক নয়নাভিরাম দৃশ্য। এটা দেখে মনে হবে কাননের মাঝে অট্টালিকা।
আদিতমারী থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মোজাম্মেল হক বলেন, শখ করেই কিছু সূর্যমুখী ফুলের গাছ লাগিয়েছি, ফুলগুলোর কাছে গেলেই মনের মাঝে তৃপ্তি পাই।
আদিতমারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোকতারুল ইসলাম বলেন, সত্যি থানায় সূর্যমুখী ফুলের বাগান করে সুনাম কুড়িয়েছেন। থানার ওসি (তদন্ত) মোজাম্মেল খুব কষ্ট করে গাছ গুলো লাগিয়ে। আসলেই ফুলগুলো দেখলেই খুব ভালো লাগে।
সূর্যমুখী ফুল বিষয়ে খুব অবাক করা তথ্য পাওয়া যায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর থেকে। দপ্তরটির সূত্র থেকে  জানা গেছে, ক্যান্সার ও হৃদরোগ প্রতিরোধী অধিক পুষ্টিগুণ সম্পন্ন সূর্যমুখীর তেল অন্যান্য সাধারণ তেলের চেয়ে একটু আলাদা। কোলেস্টেরলমুক্ত প্রচুর পরিমাণে প্রাণশক্তি থাকায় শরীরের দুর্বলতা, কার্যক্ষমতা বাড়াতে সূর্যমুখীর ভূমিকা অনন্য। রান্নার জন্য সয়াবিন তেলের চেয়ে সূর্যমুখী তেল দশগুণ বেশি পুষ্টি সমৃদ্ধ। সূর্যমুখী তেল হাড় সুস্থ্য ও মজবুত করে। শরীরের ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও কপারের চাহিদা পূরণ করে। ভিটামিন ‘ই’ সমৃদ্ধ এ তেল শরীরের নানা রকম ব্যথা দূর করতে সহায়তা করে। সূর্যমুখী তেলে থাকা ম্যাগনেসিয়াম মানসিক চাপ দূর করে। এক কথায় সূর্যমুখী তেল মানব দেহের মহৌষধ হিসেবে ভূমিকা পালন করছে। এক মণ বীজে প্রায় ১৮কেজি তেল পাওয়া যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone