শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ১৩সেন্টিমিটার উপরে! লালমনিরহাটে বিদ্যুতের সঙ্গে বন্ধ হয় মোবাইল নেটওয়ার্কও; হতাশায় এলাকাবাসী! লালমনিরহাটে খেলাধুলার মাঠে মাটির স্তূপ! লালমনিরহাটে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উদযাপিত দেশবাসীকে সাপ্তাহিক আলোর মনি’র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা লালমনিরহাটে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা-২০২৪ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে জাতীয় মহাসড়কের ডিভাইডারে ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ড স্থাপন! লালমনিরহাটের সাংবাদিক মোঃ মিজানুর রহমান-এঁর শুভ জন্মদিন পালিত লালমনিরহাটের হযরত শাহ্ কবির (রহঃ) বড়দরগাহ মাজার শরীফ লালমনিরহাটে ছাত্রলীগের সভাপতি ও তার সহযোগীদের গ্রেফতারের দাবীতে- মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

জমি দখলে বাঁধা দেওয়ায় হামলা ভাংচুর, আহত-৬জন

আলোর মনি রিপোর্ট: লালমনিরহাট জেলার আদিতমারী উপজেলায় জমি জবর দখলে বাঁধা দেওয়ায় হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় একই পরিবারের ৬জন রক্তাক্ত জখম হয়েছেন। আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা ইউনিয়নের রজবপাড়া গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন- আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা ইউনিয়নের রজবপাড়া গ্রামের মৃত জহির উদ্দিন শেখের ছেলে হোসেন আলী (৬৫), তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী রাশেদা বেগম (৪০), ফজিলা বেগম (৪৫), খাদিজা বেগম (৩৫) ও আমেনা বেগম (৩৫) এবং তার বোন মহিরন বেওয়া (৫৫)।

 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, আহত হোসেন আলীর সাথে তার প্রতিবেশী মৃত মনছুর আলীর ছেলে মোখলেছুর রহমানের দীর্ঘ দিন ধরে ২১শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। যা নিয়ে উচ্চ ও নিম্ন আদালতে মামলা বিচারাধিন রয়েছে।  শনিবার সকালে দেশি অস্ত্রসহ দলবল নিয়ে ওই জমি দখলের চেষ্টা চালান মোখলেছুর রহমান গংরা। এতে বাঁধা দেয়ায় হোসেন আলীকে প্রথমে এলোপাতারি মারপিট করেন। তাকে বাঁচাতে এগিয়ে এলে তার পরিবারের ৫জন নারী সদস্যকে লোহার রড ও দেশি অস্ত্রে রক্তাক্ত জখম করে। প্রাণ ভয়ে সবাই বাড়ি ফিরে এলে হামলাকারীরা তাদের পিছু নিয়ে বাড়িতে এসে দ্বিতীয় দফায়  হামলা ও ভাংচুর চালায় বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। এতে হোসেন আলীর পরিবারের ৬জন আহত হন।

পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন এবং আহতদের আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় শনিবার (২৪ এপ্রিল) দুপুরে  হোসেন আলী বাদি হয়ে মোখলেছুর রহমানকে প্রধান করে ১১জনের বিরুদ্ধে আদিতমারী থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন।

 

আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার বিশ্বজিৎ কুন্ড সাংবাদিকদের বলেন, আহতদের ২জন মাথায় ও বাকীরা শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত পেয়েছেন। তাদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

 

আদিতমারী থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone