শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটে কয়েকদিনের বৃষ্টিপাতে কপাল পুড়ছে মরিচ চাষির! খবর প্রকাশের পর জনস্বার্থে কেটে ফেলা হলো লালমনিরহাটের সেই প্রাচীন বটগাছটির ঝুঁকিপূর্ণ ডাল! লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ২৫সেন্টিমিটার উপরে! লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ১৩সেন্টিমিটার উপরে! লালমনিরহাটে বিদ্যুতের সঙ্গে বন্ধ হয় মোবাইল নেটওয়ার্কও; হতাশায় এলাকাবাসী! লালমনিরহাটে খেলাধুলার মাঠে মাটির স্তূপ! লালমনিরহাটে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উদযাপিত দেশবাসীকে সাপ্তাহিক আলোর মনি’র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা লালমনিরহাটে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা-২০২৪ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে জাতীয় মহাসড়কের ডিভাইডারে ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ড স্থাপন!
বুদা বাঁশের তলে দিনে দুপুরে দুই শতাধিক বাঁশ কেটে ফেলেছে প্রতিপক্ষ

বুদা বাঁশের তলে দিনে দুপুরে দুই শতাধিক বাঁশ কেটে ফেলেছে প্রতিপক্ষ

আলোর মনি ডটকম ডেস্ক রিপোর্ট: লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের হরদত্ত গ্রামের বুদা বাঁশের তল এলাকায় দিনে দুপুরে বাঁশ ঝারে দুই শতাধিক বাঁশ কাটার অভিযোগ উঠেছে।

 

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, আজ সোমবার ৩১ আগস্ট সকাল ৯ঘটিকার সময় হরদত্ত গ্রামের বুদা বাঁশের তল এলাকার মৃতঃ মাহাম্মদ আলীর ছেলে মজিদুল ইসলামের বাঁশ ঝারে বাঁশ কেটে ফেলে একই এলাকার মৃতঃ জরিপ উল্লাহ ছেলে মজিবর রহমান (৫০), মনছুর (৪০), মকবুল (৩৮) ও মকবুলের ছেলে মনিরুল এবং মনছুরের ছেলে আলিফ (২৬)।

 

এ বিষয়ে লালমনিরহাট সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন মজিদুলের বোন মোর্শেদা বেগম।

 

মোর্শেদা বেগম জানান, সকালে আমাদের প্রতিপক্ষ আমাদের বাঁশের থোপে এসে বাঁশ কাটতে থাকে বাধা দিতে গেলে আমার ভাইকে অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে আমি থানায় গিয়ে ৫জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৬/৭ নামে লিখিত অভিযোগ করলে পুলিশ এসে আমার ভাই মজিদুলকে উদ্ধার করে।

 

মজিদুল ইসলাম বলেন, আমার পিতার ভোগ দখলীয় জমি জমা লইয়া দীর্ঘদিন বিরোধ চলায় বিবাধীগণ আমারদের উপর জোর করে অন্যায় ভাবে ক্ষতি সাধনের ধারাবাহিকতায় আজ আমার বাঁশের ঝারে এসে দুইশতাধিক বাঁশ কেটে ফেলে এবং আমাকে অস্ত্রের মুখে অবরুদ্ধ করে রাখে। থানা থেকে পুলিশ আসলে তারা সবাই পালিয়ে যায়।

 

মৃতঃ জরিপ উল্লাহর ছেলে মকবুল হোসেন জানায়, আমরা মজিদুলের বাবার কাছে জমি ক্রয় করেছিলাম তারা জমি দখল দিচ্ছে না। তাই আমরা জমি দখল করতে গিয়েছি।

 

লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শাহা আলম জানান, অভিযোগ প্রাপ্তির আলোকে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone