শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটে বৈষম্যমূলক কোটা ব্যবস্থার সংস্কারের যৌক্তিক দাবীতে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দের বিক্ষোভ মিছিল ও অবস্থান কর্মসূচি! ভারতের সিকিম রাজ্যের প্রাক্তণ শিক্ষা মন্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার! লালমনিরহাটে ২ ছাত্রলীগের নেতার পদত্যাগ! লালমনিরহাটে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও সন্তান কমান্ডের মানববন্ধন ও স্মারক লিপি প্রদান লালমনিরহাটে পবিত্র আশুরার প্রস্তুতি চলছে লালমনিরহাটের পাটগ্রামে জমি জবর দখলের চেষ্টায় থানায় অভিযোগ! লালমনিরহাটে জেলা প্রেস ক্লাব লালমনিরহাট এর কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে জেলা ট্রাক, ট্যাংকলড়ী ও কাভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সম্পাদকে বহিস্কার! লালমনিরহাটে বিএসটিআই এর মোবাইল কোর্টের অভিযানে ৩৫হাজার টাকা জরিমানা

জমির উপর ১৪৪ধারা জারি

আলোর মনি ডটকম ডেস্ক রিপোর্ট: লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের নওদাবস গ্রামে একটি জমিকে কেন্দ্র করে দীর্ঘ দিন থেকে কাওয়াজের নিরসনের জন্য ১৪৪ধারা জারি করেছে আদালত।

জানা যায়, মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের বাজেমুজরাই গ্রামের হাসেন আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৪২) নওদাবস গ্রামে দীর্ঘদিন থেকে বসবাস করে আসিতেছেন। তার ক্রয়কৃত বসত ভিটার পাশে ফাঁকা জমিটি নওদাবস গ্রামের কফিল উদ্দিনের ছেলে শাহিনুর ইসলাম (৪২), সিরাজুল ইসলাম (৪৭) দীর্ঘদিন থেকে বেদখল করার জন্য বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি দিয়ে আসিতেছে।

 

গত ১৫ আগস্ট বিকাল ৩টায় শাহিনুর ও সিরাজুলের দলীয় এবং বহিরাগত লোকজনসহ জাহাঙ্গীরের জমিতে অনাধিকার প্রবেশ করিয়া জমিতে লাগানো গাছগুলো ভাঙ্গিয়া ফেলার চেষ্টা করেন। লোকজন এগিয়ে আসায় তারা চলে যায়।

 

গত ২৬ আগস্ট জাহাঙ্গীর আলম বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, লালমনিরহাট এর কাছে তার জমিকে নিয়ে শান্তি ভঙ্গের আশংকা হওয়ায়  ফৌজদারী কার্যবিধির ১৪৪ধারার বিধান মতে লিখিত আবেদন করেন।

 

গত ২৭ আগস্ট  উভয় পক্ষের মামলা শেষ না হওয়া পর্যন্ত জমিতে প্রবেশ করিতে পারিবে না   মর্মে বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, লালমনিরহাট ফৌজদারী কার্যবিধিতে ১৪৪ধারা জারি করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone