শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
মুরগির বিষ্ঠা ফেলাকে কেন্দ্র করে কলহ; হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ

মুরগির বিষ্ঠা ফেলাকে কেন্দ্র করে কলহ; হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ

লালমনিরহাটের আদিতমারীতে মুরগির বিষ্ঠা ও খামার ঘরের পানি অন্যের জমিতে পড়াকে কেন্দ্র করে খামার মালিকের সাথে প্রতিপক্ষের সাথে কলহ সৃষ্টি হয়। সৃষ্ট কলহের জেরে মুরগির খামার মালিকের উপর আকস্মিক হামলা করে আহত ও লুটপাটের ঘটনা ঘটায় গৌরাঙ্গ চন্দ্র দেবনাথসহ প্রতিপক্ষরা, এমন অভিযোগ তুলে মঙ্গলবার (১ আগস্ট) আদিতমারী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে বিপ্লব চন্দ্র দেবনাথ নামের একজন উদ্যোক্তা।

 

জানা গেছে, সারপুকুর ইউনিয়নে দেবনাথ পাড়ার বাসিন্দা বিষ্ণু দেবনাথের ছেলে উদ্যোক্তা বিপ্লব চন্দ্র দেবনাথের সাথে মুরগির বিষ্ঠা ফেলা ও খামার ঘরের পানি পড়া নিয়ে প্রতিবেশী গৌরাঙ্গ দেবনাথের কয়েকদিন থেকে কলহ চলছিলো। তারই জেরে গত ১ আগস্ট সকালে প্রথমে কথা কাটাকাটি ও পরে সংঘর্ষ হয়। এতে খামার মালিক বিপ্লব চন্দ্র দেবনাথসহ উভয় পক্ষের লোকজন আহত হয়। বিষয়টি নিয়ে উভয়পক্ষই থানায় অভিযোগ দিয়েছে।

 

স্থানীয় বাসিন্দাদের দেওয়া তথ্য ও বিপ্লব চন্দ্র দেবনাথের দেওয়া এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বিপ্লবের বাড়ী থেকে ৪০০ গজ দূরে নিজস্ব জমিতে দীর্ঘ আট বছর বছর পূর্বে নির্মাণ করা দুটি মুরগির খামার রয়েছে। খামার নির্মানকালীন সময় আশপাশে বাড়ীঘর না থাকলে বর্তমানে একটি খামারের পাশে প্রতিপক্ষের বাড়ি ও খামারের অপর দিকে বাঁশঝাড় রয়েছে। প্রতিপক্ষ গৌরাঙ্গ দীর্ঘদিন খামারের বিষ্ঠা নিজ উদ্যোগেই তার জমিতে ফেলার অনুমতি দিয়েছিলেন। তবে সম্প্রতি নিষেধ করায় বিপ্লব তার নিজস্ব জমিতেই বিষ্ঠা ও ফেলার জায়গা করেছেন। বিপ্লব অন্যের জমিতে ফেলতে না চাইলেও হঠাৎ বৃষ্টির চাপে পানির সাথে গড়ে গৌরাঙ্গের জমিতে যাওয়ায় কথা-কাটাকাটি হয়। তারই জের ধরে ঘটনার দিন অর্থাৎ গত ১ আগষ্ট সকালে প্রতিপক্ষ একই এলাকার বাসিন্দা মৃত অনন্ত কুমারের গৌরাঙ্গ চন্দ্র (৫০), গৌরাঙ্গের চাচা বীরেন চন্দ্রসহ কয়েকজন খামার লাগোয়া তার জমিতে আসেন এবং গৌরাঙ্গকে ডেকে নেয়। সেখানে উভয়ের মাঝে প্রথমে কথা-কাটাকাটি ও পরে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে উদ্দোক্তা গৌরাঙ্গ আহত হয়। গৌরাঙ্গকে বাচাতে তার বাবা-মা এগিয়ে আসলে তারাও হামলার শিকার হয়।

 

থানায় দেওয়া লিখিত অভিযোগে গৌরাঙ্গ উল্লেখ করে জানান, হামলাকারীরা খামারও ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতি করে। এ সময় প্রতিপক্ষের একজন সুযোগ বুঝে গৌরাঙ্গের মায়ের গলায় থাকা একটি স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়। পরে আশপাশে থাকা স্থানীয়রা এগিয়ে এসে উভয়পক্ষের লোকজনকে শান্ত করে আহতদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।

 

এ বিষয়ে প্রতিপক্ষ বীরেন চন্দ্র দেবনাথে সাথে কথা হলে তিনি জানান, গৌরাঙ্গের সাথে বিপ্লবের কথা-কাটাকাটি ও মারামারি হয়েছে। যেখানে গৌরাঙ্গের মাথা ফেটে গেছে এবং তার মাথায় চিকিৎসক সেলাই দিয়েছে। উভয়ের মারামারিতে বিপ্লবও আহত হয়েছে তবে ছিনতাইয়ের ঘটনা মিথ্যে ও হামলার সময় উপস্থিত থাকলেওনতার সম্পৃক্ততা ছিলো না বলে দাবি করেছেন তিনি।

 

তবে অভিযোগকারী বিপ্লব জানান, তিনি একা ছিলেন আর হামলাকারীরা কয়েকজন ছিলো। হামলাকারীদের নিজেদের কারো মাধ্যমে গৌরাঙ্গের মাথা ফেটে থাকতে পারে।

 

স্থানীয় ইউপি সদস্য আজিজ মিয়া জানান, খামার মালিক বিপ্লব চন্দ্র দেবনাথ ও তার প্রতিপক্ষ গৌরাঙ্গ চন্দ্র দেবনাথ একে অপরের প্রতিবেশী। উভয়ের সাথে কথা হয়েছে তারা থানায় অভিযোগ দিয়েছে। বসে কথা বলার মাধ্যমে সমাধান না করা গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবে থানা পুলিশ।

 

এ বিষয়ে আদিতমারী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোজাম্মেল হক জানান, উভয়পক্ষই লিখিতভাবে অভিযোগ দিয়েছে এবং তা তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone