শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ২০২৪ এর পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত প্রেসক্লাব লালমনিরহাটের নতুন সদস্য ২০জনের চুড়ান্ত অনুমোদন শব্দহীন কবিতার অবয়ব ভাটিবাড়ী লোকনাট্য দলের আহবায়ক কমিটি গঠন অনুষ্ঠিত মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত পাটগ্রাম তাহেরা বিদ্যাপীঠে বার্ষিক ক্রীড়া, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার মাতৃভাষা দিবসের শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত সুলতানুল আউলিয়া, ইনসানে অলীয়ে কামেল হযরত শাহ্ নওগজি (রহঃ) এর বাৎসরিক মহা পবিত্র ওরছ মোবারক লালমনিরহাটে নবনির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য অ্যাড. মোঃ মতিয়ার রহমান এর সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত
উত্তর বাংলা কলেজে উপবৃত্তি সুবিধাভোগী শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি নেওয়ার অভিযোগ

উত্তর বাংলা কলেজে উপবৃত্তি সুবিধাভোগী শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি নেওয়ার অভিযোগ

লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার কাকিনা গ্রামে অবস্থিত উত্তর বাংলা কলেজে উপবৃত্তি সুবিধাভোগী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিউশন ফি আদায়ের অভিযোগ উঠেছে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে। গেল বছর ডিসেম্বরে মাসে এই কলেজে আব্দুর রউফ সরকার অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদানের পর টিউশন ফি আদায়ের প্রথা চালু করেছেন। এর আগে উপবৃত্তি সুবিধাভোগী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিউশন ফি নেওয়া হতো না। সরকারি ঘোষণা মোতাবেক উপবৃত্তি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিউশন ফি নেওয়া যাবে না। কারণ প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এ অর্থের যোগান দেয়া হচ্ছে।
উত্তর বাংলা কলেজ সূত্র জানায়, এ কলেজে এইচএসসি, বিএ, বিএসএস, বিকম, বিএসসি ও বিএমটি (বিজনেস ম্যানেজমেন্ট এন্ড টেকনিক্যাল) শাখায় ১হাজার ৭শত শিক্ষার্থী পড়াশুনা করছেন। এদের মধ্যে ৪শত ৫৫জন শিক্ষার্থী উপবৃত্তি পাচ্ছেন। উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৩শত ৭জন ছাত্রী আর ১শত ৪৮জন ছাত্র। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত সকল শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিউশন ফি আদায় করা হচ্ছে।
উত্তর বাংলা কলেজে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিউশন ফি আদায় করায় কাকিনা চাপারতল এলাকার এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক শফিকুল ইসলাম বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
শফিকুল ইসলাম বলেন, উত্তর বাংলা কলেজটি প্রতিষ্ঠা হয় স্থানীয় গরীব পরিবার থেকে আসা ছেলে-মেয়েদের শিক্ষিত করার জন্য। এ ছাড়া এই অঞ্চলে পিছিয়ে থাকা নারী শিক্ষাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া এই কলেজ প্রতিষ্ঠার অন্যতম কারণ। তিস্তা নদী তীরবর্তী এলাকায় বসবাসরত বন্যা, খরা ও নদী ভাঙনে নিঃস্ব পরিবার থেকে অনেক শিক্ষার্থী এই কলেজে অধ্যয়ন করেন। এসব শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে জোরপূর্বক টিউশন ফি আদায় করছেন কলেজের নতুন অধ্যক্ষ আব্দুর রউফ সরকার। তিনি এ ব্যাপারে কারো কথাই শুনছেন না। তিনি ইচ্ছা মতো কলেজ পরিচালনা করছেন। আমি লিখিত অভিযোগ করেছি। আশা করছি সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন তিনি বলেন।
এই কলেজের উপবৃত্তি সুবিধাভোগী নারী শিক্ষার্থীরা বলেন, তাদের কাছ থেকে জোরপূর্বক টিউশন ফি আদায় করা হচ্ছে। টিউশন ফি দিতে রাজি না হলে কলেজ থেকে বের করে দেওয়ার হুমকিও দেওয়া হচ্ছে। কলেজের নতুন অধ্যক্ষ আব্দুর রউফ সরকার সরাসরি টিউশন ফি আদায়ের ব্যাপারে শিক্ষার্থীদের জানিয়ে দিয়েছেন। সরকারি নির্দেশকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখাচ্ছেন কলেজ কর্তৃপক্ষ।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কলেজের শিক্ষক ও কর্মচারীরা বলেন, কলেজের অধ্যক্ষের নির্দেশ তাদেরকে পালন করতেই হচ্ছে। এ ব্যাপারে তারাও অসহায় হয়ে পড়েছেন। দরিদ্র পরিবার থেকে পড়তে আসা শিক্ষার্থীরা টিউশন ফি নিয়ে বিপাকে পড়েছেন।
কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রউফ সরকার সাংবাদিকদের বলেন, কলেজের সকল শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিউশন ফি আদায় করা হচ্ছে। কারণ কলেজে অতিরিক্ত শিক্ষক দিয়ে শিক্ষার্থীদের অতিরিক্ত পাঠদান করা হচ্ছে। অতিরিক্ত শিক্ষকদের বেতন দিতে হয়। অতিরিক্ত পাঠদানের কারনে শিক্ষার্থীদের পড়াশুনার মান উন্নত হচ্ছে এবং ফলাফলও ভালো হচ্ছে। উপবৃত্তি সুবিধাভোগি শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দেওয়া হচ্ছে তারপরও কেন তাদের কাছ টিউশন ফি নেওয়া হচ্ছে এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেননি।
কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল মান্না সাংবাদিকদের বলেন, তিনি এ বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। সরকার প্রদেয় উপবৃত্তি সুবিধাভোগি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কলেজ কর্তৃপক্ষ কোনভাবেই টিউশন ফি আদায় করতে পারে না। কারণ প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এ অর্থের যোগান দেয়া হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone