শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটে ক্ষতিকারক ইউক্যালিপটাস গাছ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে লালমনিরহাটের বটতলার সড়কবাতি জ্বলে না! লালমনিরহাটের প্রাচীন বটগাছটি হেলে যাচ্ছে! লালমনিরহাটে ব্যবসায়ীর টাকা ছিনতাই চেষ্টা; ২ পুলিশ সদস্য প্রত্যাহার! লালমনিরহাট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতিকে অব্যাহতি লালমনিরহাট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতির বিরুদ্ধে গরু ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে ২লাখ ৪০হাজর টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ! উপকারভোগীর কাছ থেকে মাইক্রোফোন কেড়ে নেওয়ায় ক্ষেপে গেলেন প্রধানমন্ত্রী! লালমনিরহাটে সিজেজি সদস্যদের সাথে নেটওয়ার্কিং মিটিং অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ হস্তান্তর কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটের ঐতিহ্যবাহী মোগলহাট জিরো পয়েন্ট এখন শুধুই স্মৃতি : দর্শনার্থীদের ভিড়
একরামুল হকের কমলা ও মাল্টা বাগান পরিদর্শন করলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. মতিয়ার রহমান

একরামুল হকের কমলা ও মাল্টা বাগান পরিদর্শন করলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. মতিয়ার রহমান

আলোর মনি রিপোর্ট: লালমনিরহাট জেলার লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের হাড়ীভাঙ্গায় অবস্থিত একরামুল হকের কমলা ও মাল্টা বাগান পরিদর্শনে গিয়ে ঘুরে দেখলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ লালমনিরহাট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও লালমনিরহাট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. মতিয়ার রহমান।

 

লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের হাড়ীভাঙ্গা এলাকায় কমলা ও মাল্টা এবং পেয়ারা চাষ কার্যক্রম ঘুরে দেখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ লালমনিরহাট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও লালমনিরহাট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. মতিয়ার রহমান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ লালমনিরহাট জেলা শাখার দপ্তর সম্পাদক ও ৫নং হারাটি ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান সিরাজুল হক খন্দকার রানা প্রমুখ।

 

মোঃ একরামুল হকের ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রায় ৬একর জমিতে লাগানো কমলা ও মাল্টা এবং পেয়ারা গাছের বাগানটি লালমনিরহাট জেলার উল্লেখযোগ্য একটি কমলা ও মাল্টা এবং পেয়ারা বাগান। এ বাগানে সবুজ রঙের বারি জাতের মাল্টার গাছ আছে ২হাজার ৮শতটি, দার্জিলিংয়ের কমলার গাছ আছে ৪শতটি, চাইনিজ জাতের কমলার গাছ আছে ২শতটি এবং বর্ষাকালীন থাই সেভেন ও বর্ষাকালীন থাই ফাইভ জাতের পেয়ারা গাছ আছে ২হাজারটি। এ বছর প্রায় প্রতিটি গাছে কমলা ও মাল্টা ফল ধরেছে। বাগান থেকে লালমনিরহাটসহ দেশের বিভিন্ন জায়গার ব্যবসায়ীরা কমলা ও মাল্টা ক্রয় করে নিয়ে যাচ্ছেন। এই বাগানের কমলা ও মাল্টা আকারে এবং স্বাদে উন্নত হওয়ায় জেলাব্যাপী ব্যাপক চাহিদা বলে জানা গেছে।

 

মাল্টা বাগান পরিদর্শন শেষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ লালমনিরহাট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও লালমনিরহাট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. মতিয়ার রহমান বলেন, কমলা ও মাল্টা এবং পেয়ারা চাষ করা খুব ভালো উদ্যোগ। জেলায় এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। একরামুল হককে অনুসরন করে কমলা ও মাল্টা চাষে ব্যাপক সফলতা অর্জন সম্ভব।

 

তিনি আরও বলেন, একরামুল সফলভাবে সুস্বাদু মিষ্টি ও রসালো কমলা ও মাল্টা চাষ করে রীতিমতো হৈ চৈ ফেলে দিয়েছে। সবার দৃষ্টি এখন কমলা ও মাল্টা বাগানের দিকে।

 

উল্লেখ্য যে, একরামুল হক ৬একরের বাগানের পাশাপাশি নিজ বাড়ির ৪০শতাংশ জমিতে মাল্টার বাগান করেছে। রংপুর ও মিটাপুকুরেও জমি লিজ নিয়ে বাগান ও নার্সারি করেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone