শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেফতার ভোটমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেন

চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেফতার ভোটমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেন

লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনকে চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেফতার করেছে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ।

 

মঙ্গলবার (২৮ জুন) ভোরে ভোটমারী ইউনিয়নের শ্রুতিধর এলাকায় তার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

 

তবে স্থানীয়দের অভিযোগ, সড়ক নির্মাণে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় তার বিরুদ্ধে মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেন এলাহী বকস নামে এক ঠিকাদার।

 

আর ঠিকাদার বলছেন, চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেন তাকে ও তার ছেলেকে গ্রাম পুলিশ দিয়ে ডেকে নিয়ে গিয়েছেন। এতে তার মন খারাপ হয়েছে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়নের বড়দীঘিরপাড় এলাকায় একটি সড়ক নির্মাণের ঠিকাদারী করছেন এলাহী বকস নামে এক ঠিকাদার। সড়ক নির্মাণে অনিয়ম হচ্ছে মর্মে স্থানীয় লোকজন ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনকে অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেন ঠিকাদার এলাহী বকসকে ডাকেন এবং সরেজমিন পরিদর্শন করে সড়ক নির্মাণে অনিয়মের প্রতিবাদ করেন।

 

এ ঘটনায় রোববার (২৬ জুন) ভোটমারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনের বিরুদ্ধে ৪/৫ লক্ষ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন ওই ঠিকাদার।

 

ভোটমারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনের পরিবারের অভিযোগ, স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে সড়ক নির্মাণে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় চেয়ারম্যানকে জড়িয়ে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন ওই ঠিকাদার এলাহী বকস।

তবে ঠিকাদার এলাহী বকস বলেন, চাঁদা চাওয়াটা বড় কথা নয়। চেয়ারম্যান সাহেব আমাকে ও আমার ছেলেকে চৌকিদার দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে ধরে নিয়ে গেছে। এতে আমার মন খারাপ তাই মামলা করেছি।

 

কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম রসুল জানান, একটি চাঁদাবাজির মামলায় ভোটমারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone