শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ১৩সেন্টিমিটার উপরে! লালমনিরহাটে বিদ্যুতের সঙ্গে বন্ধ হয় মোবাইল নেটওয়ার্কও; হতাশায় এলাকাবাসী! লালমনিরহাটে খেলাধুলার মাঠে মাটির স্তূপ! লালমনিরহাটে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উদযাপিত দেশবাসীকে সাপ্তাহিক আলোর মনি’র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা লালমনিরহাটে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা-২০২৪ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে জাতীয় মহাসড়কের ডিভাইডারে ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ড স্থাপন! লালমনিরহাটের সাংবাদিক মোঃ মিজানুর রহমান-এঁর শুভ জন্মদিন পালিত লালমনিরহাটের হযরত শাহ্ কবির (রহঃ) বড়দরগাহ মাজার শরীফ লালমনিরহাটে ছাত্রলীগের সভাপতি ও তার সহযোগীদের গ্রেফতারের দাবীতে- মানববন্ধন অনুষ্ঠিত
৭নং ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী অ্যাড. মোঃ মশিউর রহমান

৭নং ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী অ্যাড. মোঃ মশিউর রহমান

আলোর মনি রিপোর্ট: ইতিমধ্যেই বইতে শুরু করেছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের হাওয়া। স্ব স্ব এলাকায় নির্বাচনী গণসংযোগ করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার ৭নং ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে নৌকার মাঝি হয়ে ইউনিয়নকে মডেল হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ লালমনিরহাট জেলা শাখার সদস্য ও হাতীবান্ধা উপজেলা শাখার আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. মশিউর রহমান।

 

অ্যাড. মোঃ মশিউর রহমান-এঁর জন্ম ১৯৭০ সালের ৬ জুন লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার ৭নং ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড উত্তর ডাউয়াবাড়ী গ্রামে। তাঁর পিতা- মোঃ রুহুল আমিন। তাঁর মাতা- মৃত্য আবেদা খাতুন। ৩ভাই ৫বোনের মধ্যে তিনি প্রথম। তাঁর স্ত্রী- অ্যাড. মোছাঃ মাসুমা ইয়াসমীন। সন্তান- ২কন্যা সন্তানের জনক। তাঁর কন্যারা হলেন- মোছাঃ মৌমিতা রহমান ঈস্পিতা ও মোছাঃ মৌলি মালিহা।

 

অ্যাড. মশিউর রহমান বলেন, পারিবারিক সূত্রে বাল্যকাল থেকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনৈতিক জীবন শুরু করি। বিভিন্ন আন্দোলন, সংগ্রামে অংশগ্রহণ করে হামলা, মামলা-মোকদ্দমা মোকাবেলা করেছি। ওয়ার্ড, ইউনিয়ন ও উপজেলাসহ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন কমিটিতে সম্পৃক্ত থেকে নেতৃত্ব দিয়েছি। বর্তমানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ লালমনিরহাট জেলা শাখার সদস্য ও হাতীবান্ধা উপজেলা শাখার আইন বিষয়ক সম্পাদক ও বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত ৭নং ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়নের প্রার্থী ছিলাম। সংগঠন বিরোধী কোন কর্মকান্ড করি নাই, দলীয় সকল কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করেছি এবং ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৭নং ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়নের নদী ভাঙ্গণ কবলিত এলাকাসহ ইউনিয়ন বাসীকে বিভিন্ন ভাবে সাহায্য সহযোগিতা করে আসছি। আমি যতদিন বেঁচে থাকব সাধ্যমত সাহায্য সহযোগিতা করে যাব। তাই আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমি দলীয় মনোনয়ন (নৌকা প্রতীক) প্রত্যাশী। এ ইউনিয়নের সবচেয়ে বেশী সমস্যা তিস্তা নদীর বাম তীর ভাঙ্গণ, দারিদ্রতা, দুর্নীতি, মাদকসহ আরও অনেক। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যদি আমাকে মনোনয়ন দেয় তাহলে আমি দলীয় মনোনয়ন (নৌকা প্রতীক) নিয়ে নির্বাচিত হয়ে, সমস্ত সরকারী সেবা জনগনের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দিবো। বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বেকারদের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টি করে দিবো। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, দরিদ্র বিমোচন, রাস্তা ঘাট অর্থাৎ অবকাটামোগত উন্নয়ন করব। দারিদ্রতা, দুর্নীতি, মাদক মুক্ত করব ইউনিয়নকে। ইত্যেমধ্যে গনসংযোগ শুরু করেছি। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আমাকে মনোনয়ন দিলে এবারে নৌকা প্রতীক নিয়ে আমি বিজয়ী হবো ইনশাল্লাহ।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone