শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ১৩সেন্টিমিটার উপরে! লালমনিরহাটে বিদ্যুতের সঙ্গে বন্ধ হয় মোবাইল নেটওয়ার্কও; হতাশায় এলাকাবাসী! লালমনিরহাটে খেলাধুলার মাঠে মাটির স্তূপ! লালমনিরহাটে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উদযাপিত দেশবাসীকে সাপ্তাহিক আলোর মনি’র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা লালমনিরহাটে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা-২০২৪ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে জাতীয় মহাসড়কের ডিভাইডারে ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ড স্থাপন! লালমনিরহাটের সাংবাদিক মোঃ মিজানুর রহমান-এঁর শুভ জন্মদিন পালিত লালমনিরহাটের হযরত শাহ্ কবির (রহঃ) বড়দরগাহ মাজার শরীফ লালমনিরহাটে ছাত্রলীগের সভাপতি ও তার সহযোগীদের গ্রেফতারের দাবীতে- মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

নূরানী জামে মসজিদের জমি দখলের অভিযোগ

আলোর মনি রিপোর্ট: লালমনিরহাট জেলার আদিতমারী উপজেলার ভেলাবাড়ী ইউনিয়নের শালমারা গ্রামের নূরানী জামে মসজিদের জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে।

 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১৭/০৮/২০২১ তারিখ দুপুর ১২ ঘটিকার সময় এলাকাবাসী নিজ উদ্যোগে মসজিদের বাউন্ডারি ওয়ালের ভিতর মাদ্রাসা নির্মাণের কাজ চলাকালে মোঃ মাহাবুর রহমান (২৮), মোঃ মিন্টু মিয়া (৩৫), মোঃ মিজানুর রহমান (১৯) সকলের পিতা মৃত মকবুল হোসেন। গ্রাম- শালমারা, থানা- আদিতমারি, জেলা- লালমনিরহাটগণ অজ্ঞাতনামা আরো ৫/৬জনসহ হাতে লোহার শাবলসহ বাউন্ডারি ওয়ালের ভিতরে অনধিকার প্রবেশ করিয়া মসজিদের ১.৭১শতক জমি মালিকানা দাবি করিয়া মাদ্রাসা ঘর নির্মাণে বাঁধা দেয়। তখন মসজিদের মুসল্লিদের সহিত বিবাদীদের কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বিবাদীদের হাতে থাকা শাবল দিয়ে মসজিদের পাকা বাউন্ডারি ওয়াল ভাংচুর করে।

 

অভিযোগে উল্লেখিত বিবাদীগণের হাতে থাকা ধারালো শাবল দিয়া উপস্থিত মসজিদের মুসল্লিদের খুন-জখমের হুমকি দিয়া তারাইয়া দেয়। পুর্ণরায় মুসল্লিবৃন্দ মাদ্রাসা নির্মাণের কাজ শুরু করিলে মেরে ফেলবে বলে হুমকি প্রদান করে। ফলে বিবাদীদের বাঁধার কারণে বর্তমানে মসজিদের বাউন্ডারির ভিতরে মাদ্রাসা নির্মাণের কাজ বন্ধ রহিয়াছে এবং মসজিদের মুসল্লিরা নামাজ পড়তে গেলেই বিবাদীরা অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করে ও বিভিন্ন ভাবে হুমকি প্রদান করে।

 

বিবাদী মাহাবুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, আইন সবার জন্য সমান আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু সমাধান চাই।

 

এ বিষয়ে মসজিদের সভাপতি আবদুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, কাগজ পাতি দেখে আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু সমাধান করবো।

 

আদিতমারী থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone