শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
লালমনিরহাটে ৫দিন ব্যাপী শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে

লালমনিরহাটে ৫দিন ব্যাপী শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে

বছর ঘুরে শুরু হয় শারদীয় দূর্গোৎসব। উলুধ্বনি, শঙ্খ, ঘন্টা, ঢাকের বোলে বরণ করে নেওয়া হবে মহিষাসুর মর্দিনী দেবী দুর্গাকে। ৫দিন ব্যাপী দুর্গোৎসবের শুরু আগামী শনিবার (১ অক্টোবর)। লালমনিরহাট জেলা জুড়ে এ উৎসবকে আনন্দমুখর করে তুলতে মন্ডপগুলোতে এরই মধ্যে শুরু হয়েছে বর্ণাঢ্য প্রস্তুতি ও আলোকসজ্জা। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন মন্দির ও মহলের আদলে তৈরি করা হয়েছে পূজামণ্ডপ। আর রঙিন আলোক ছটায় তৈরি হয়েছে উৎসবের আমেজ। সনাতন পঞ্জিকা মতে, শনিবার (১ অক্টোবর) শ্রীশ্রী দুর্গাদেবীর ষষ্ঠাদি কল্পারম্ভ এবং ষষ্ঠিবিহিত পূজা প্রশস্তা। সায়ংকালে দেবীর আমন্ত্রণ ও অধিবাসরের মধ্য দিয়ে শুরু হবে দুর্গোৎসবের মূল পর্ব। রোববার (২ অক্টোবর) শ্রীশ্রী দুর্গাদেবীর নবপত্রিকা প্রবেশ, স্থাপন ও সপ্তমি বিহিত পূজা প্রশস্তা। দেবীর নৌকায় আগমন, ফল-শস্যবৃদ্ধিস্তু থাজলম্। সোমবার (৩ অক্টোবর) শ্রীশ্রী দুর্গাদেবীর মহাষ্টমী বিহিত পূজা প্রশস্তা। সন্ধি পূজা। মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) শ্রীশ্রী দুর্গাদেবীর মহার্মী বিহিত পূজা প্রশস্তা। বুধবার (৫ অক্টোবর) শ্রীশ্রী দুর্গাদেবীর দশমী বিহিত পূজা সমাপনান্তে বিসর্জন প্রশস্তার মধ্য দিয়ে শেষ হবে শারদীয় এ উৎসব।

 

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ লালমনিরহাট জেলা শাখা সূত্রে জানা যায়, লালমনিরহাট জেলায় এবারে মোট ৪শত ৬৩টি পূজা মন্ডবে দূর্গোৎসব চলবে। তন্মধ্যে লালমনিরহাট পৌরসভা এলাকায় মোট ২৫টি, মোগলহাট ইউনিয়নে ২১টি, কুলাঘাট ইউনিয়নে ১২টি, হারাটি ইউনিয়নে ১৫টি, বড়বাড়ী ইউনিয়নে ৯টি, গোকুন্ডা ইউনিয়নে ২১টি, পঞ্চগ্রাম ইউনিয়নে ২০টি, রাজপুর ইউনিয়নে ৮টি, খুনিয়াগাছ ইউনিয়নে ১৪টি, মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নে ১৫টিসহ লালমনিরহাট সদর উপজেলায় মোট ১শত ৬০টি।

 

দূর্গাপূর ইউনিয়নে ১০টি, ভেলাবাড়ী ইউনিয়নে ১৪টি, কমলাবাড়ী ইউনিয়নে ১৬টি, সারপুকুর ইউনিয়নে ২৪টি, সাপ্টিবাড়ী ইউনিয়নে ৫টি, ভাদাই ইউনিয়নে ২৮টি, পলাশী ইউনিয়নে ১১টি, মহিষখোচা ইউনিয়নে ৬টিসহ আদিতমারী উপজেলায় মোট ১শত ১৪টি।

 

ভোটমারী ইউনিয়নে ৫টি, মদাতী ইউনিয়নে ১৪টি, তুষভান্ডার ইউনিয়নে ১২টি, দলগ্রাম ইউনিয়নে ৯টি, কাকিনা ইউনিয়নে ৭টি, চলবলা ইউনিয়নে ১৬টি, গোড়ল ইউনিয়নে ১৪টি, চন্দ্রপুর ইউনিয়নে ১২টিসহ মোট কালীগঞ্জ উপজেলায় ৮৯টি।

 

বড়খাতা ইউনিয়নে ৩টি, ফকিরপাড়া ইউনিয়নে ৪টি, গড্ডিমারী ইউনিয়নে ১টি, সিংগিমারী ইউনিয়নে ২টি, টংভাঙ্গা ইউনিয়নে ১৭টি, সিন্দুর্না ইউনিয়নে ৪টি, পাটিকাপাড়া ইউনিয়নে ৩টি, ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়নে ৩টি, নওদাবাস ইউনিয়নে ১২টি, গোতামারী ইউনিয়নে ১০টি, ভেলাগুড়ি ইউনিয়নে ১২টিসহ মোট হাতীবান্ধা উপজেলায় ৭১টি।

 

পাটগ্রাম পৌরসভায় ৪টি, পাটগ্রাম ইউনিয়নে ২টি, শ্রীরামপুর ইউনিয়নে ২টি, বুড়িমারী ইউনিয়নে ১টি, জগতবেড় ইউনিয়নে ৬টি, জোংড়া ইউনিয়নে ৬টি, বাউড়া ইউনিয়নে ৬টি, দহগ্রাম ইউনিয়নে ১টিসহ পাটগ্রাম উপজেলায় মোট ২৮টি পূজা মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা পালিত হবে।

 

দূর্গোৎসব ‘মা’ দূর্গাদেবীর নিকট অসুরশক্তির বিনাস এবং ব্যক্তি, পরিবার তথা দেশ ও জাতির সর্বাঙ্গীন মঙ্গল কামনা করে প্রার্থনা জানানো হবে।

 

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ লালমনিরহাট পৌর শাখার সাধারণ সম্পাদক মুহিন চন্দ্র রায় বলেন, আগামী শনিবার (১ অক্টোবর) ষষ্ঠী পূজার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে দূর্গা পূজা শুরু হবে। আগামী বুধবার (৫ অক্টোবর) দশমী ও বিসর্জনের মাধ্যমে শারদীয় পূজা সমাপ্ত হবে।

 

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ লালমনিরহাট জেলা শাখার সভাপতি হীরা লাল রায় বলেন, বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গা পূজা শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠানের জন্য সবধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone