শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
কৃষক লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে উপজেলা চেয়ারম্যান ৭, ভাইস চেয়ারম্যান ১০, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ৬জন বৈধভাবে মনোনীত প্রার্থী; ১জন চেয়ারম্যানের মনোনয়নপত্র বাতিল! প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী ২০২৪ শুভ উদ্বোধন এবং আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত মানবিক সহায়তা (ঢেউটিন ও টাকা) বিতরণ অনুষ্ঠিত এমদাদুল সিন্ডিকেটের এক সদস্য গ্রেফতার! সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে সাবেক ইউপি সদস্য গুলিবিদ্ধ লালমনিরহাটের ২টি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৮জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১০জন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ লালমনিরহাটের শখের বাজার সড়কের পথচারীরা, কর্তৃপক্ষ নির্বিকার লালমনিরহাটে বিলুপ্তির পথে ঘুঘু পাখি! একুশ বছর
নৌকাই ভরসা, সেটা মাথায় রাখতে হবে: আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

নৌকাই ভরসা, সেটা মাথায় রাখতে হবে: আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কায় ভোট চেয়ে দলটির সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, নৌকা নূহ নবীর নৌকা, বিপদে মানুষের একমাত্র বাহন হচ্ছে নৌকা। এখনও রাস্তা-ঘাট যতই করি, বন্যা হলে উদ্ধার করতে নৌকাই ভরসা, সেটা মাথায় রাখতে হবে।

বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) বিকালে পঞ্চগড়, লালমনিরহাট, নাটোর, পাবনা ও খাগড়াছড়ি জেলার নির্বাচনী জনসভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন তিনি। রাজধানীর তেজগাঁওস্থ ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ ভবন প্রান্ত থেকে এতে যোগ দেন তিনি।

বাংলাদেশে ভোটের অধিকার আওয়ামী লীগই প্রতিষ্ঠিত করেছে দাবি করে শেখ হাসিনা বলেন, সেটা অব্যাহত থাকবে। আপনাদের সতর্ক থাকতে হবে। কেউ যাতে সংঘাত-সন্ত্রাস করতে না পারে সেদিকে সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।

৭ জানুয়ারির দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে তিনি বলেন, জনগণ ভোট দেবে, ভোটের মালিক জনগণ। এটা তাদের সাংবিধানিক অধিকার। আমরা এটা উন্মুক্ত করেছি, আমাদের নৌকার প্রার্থী আছে, স্বতন্ত্র প্রার্থীও আছে, অন্যান্য দলও আছে। প্রত্যেকে জনগণের কাছে যাবেন, জনগণ যাকে ভোট দেবে সে-ই নির্বাচিত হবে। কেউ কারও অধিকারে হস্তক্ষেপ করবেন না। এখানে কোনও রকম সংঘাত-সহিংসতা আমি দেখতে চাই না। কোনও সংঘাত হলে, দলের কেউ যদি করে তাদের রেহাই নেই। যথাযথ ব্যবস্থা নেবো। সেটা মনে রাখবেন।

জনগণ ভোটের অধিকার নির্বিঘ্নে প্রয়োগ করবে—এমন প্রত্যাশার কথা জানিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, তারা যাকে খুশি তাকে পছন্দ করবে, তাকে ভোট দেবে, সে-ই জয়ী হয়ে আসবে। গণতন্ত্রকে আরও সুদৃঢ় আমাদের করতে হবে। এর যদি ব্যত্যয় ঘটে, ভবিষ্যতে কী হবে? বাংলাদেশ শেষ হয়ে যাবে। বাংলাদেশে যতটুকু উন্নতি করেছি, তা থাকবে না।

এ সময় দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে নৌকা মার্কায় ভোট চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, নির্বাচন নিয়ে যাতে কেউ কোনও অভিযোগ আনতে না পারে, শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন করবেন। নির্বাচনে জনগণের অংশগ্রহণ থাকতে হবে। ভোটারের অংশগ্রহণ থাকতে হবে। কোন দল আসলো না আসল তাতে কিচ্ছু যায় আসে না। ওরা তো ভোট চুরির সুযোগ না থাকায় আসেনি। বিএনপি আসেনি একটাই কারণ, ভোট চুরির সুযোগ নেই তাই। ২০০৮ সালে পারে নাই, তাই এখন ভোট বাতিল করতে চায়, বর্জন করতে চায়। সেটা তাদের ইচ্ছা, যার যার দলের ইচ্ছা। আমরা নির্বাচনে বিশ্বাস করি, জনগণের ক্ষমতায়নে বিশ্বাস করি। জনগণের ক্ষমতায়ন আমরাই নিশ্চিত করেছি।

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, আপনারা সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন করবেন। নিজের দলের মধ্যে ঐক্য রাখবেন। যত প্রার্থী আছে সবাই জনসংযোগ করুক স্বাধীন মতো। জনগণকে সুযোগ দেবেন তাদের পছন্দের মতো প্রার্থী নির্বাচিত করতে। তাতে গণতন্ত্র আরও বেশি শক্তিশালী হবে। যারা নির্বাচনে এসেছে তাদের ধন্যবাদ জানাই।

এদিকে লালমনিরহাট কালেক্টরেট মাঠে আয়োজিত জনসভা থেকে যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন লালমনিরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ১৮, লালমনিরহাট-০৩ আসনের আওয়ামী লীগ পদপ্রার্থী অ্যাড. মোঃ মতিয়ার রহমান প্রমুখ। এ সময় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দি, সদস্য অ্যাড. সফুরা বেগম রুমী, লালমনিরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ১৬, লালমনিরহাট-০১ আসনের আওয়ামী লীগ পদপ্রার্থী মোতাহার হোসেন, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও ১৭, লালমনিরহাট-০২ আসনের আওয়ামী লীগ পদপ্রার্থী নুরুজ্জামান আহম্মেদসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone