শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
বন্যার্তদের সাহায্যে এগিয়ে আসুন

বন্যার্তদের সাহায্যে এগিয়ে আসুন

আলোর মনি রিপোর্ট: নদী মাতৃক আমাদের এই দেশ বাংলাদেশ। অসংখ্য নদ-নদী ছড়িয়ে আছে সারাদেশে। প্রতি বছর মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে প্রবল বৃষ্টিপাত হয় এখানে। আবার হিমালয় থেকে ধেয়ে আসা বরফ গলা পানি নদীর দু’কূল প্লাবিত করে দেয়। ফলে বন্যার সৃষ্টি হয়। বর্তমানে বন্যা একটি নিয়মিত প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে পরিণত হয়েছে বাংলাদেশে। এ কারণে প্রতি বছর এ দেশের কোটি কোটি টাকার ধন-সম্পদ নষ্ট হয়। সর্বনাশা বন্যার মানুষের ঘর-বাড়ি ও ধন-সম্পদের প্রভূত ক্ষতি সাধিত হয়। জনগণের স্বাভাবিক জীবনে নেমে আসে চরম বিপর্যয়। তাই আমাদের দেশের জন্য বন্যা বর্তমানে একটি জাতীয় সমস্যায় পরিণত হয়েছে। ষড়ঋতুর বাংলাদেশে প্রতি বছরই বর্ষা ঘুরে ঘুরে আসে। আর কোন না কোন এলাকা প্লাবিত হয় বন্যায়। বাংলার ভূ-প্রাকৃতিক কারণেই বর্ষা মৌসুমে চারদিক পানিতে থৈ থৈ করে। তার উপর প্রবল বর্ষণ শুরু হয় এবং পাহাড়ী ঢল নেমে আসে দেখা যায় বিপত্তি। নদীর উভয় তীর প্লাবিত হয়ে জনপদে পানি ঢুকে পড়ে। সৃষ্টি হয় ভয়াবহ বন্যার। বন্যার হাত থেকে রক্ষার যথোপযুক্ত ব্যবস্থা না থাকায় ক্ষতির পরিমাণ অনেক বেশি হয়। সরকারি হিসাব মতে দেশে বন্যায় প্রতি বছর প্রায় ত্রিশ হাজার কোটি টাকার ফসল হানি ঘটে। ঘর-বাড়ি ও ব্যবসা-বাণিজ্যের ব্যাপক ক্ষতি হয়। বানে জলে ভেসে যায় পশু-পাখি, জীবন্ত মানুষ পানির নিচে তলিয়ে যায় রাস্তা-ঘাট, যোগাযোগ ব্যবস্থা হয়ে পড়ে বিচ্ছিন্ন। ফলস্বরূপ শিল্প-কারখানার মালামাল যাতায়াতে বিঘ্ন ঘটে। আবারও বন্যা উত্তরকালে বিভিন্ন প্রকার রোগ-ব্যাধি মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ে। এদিকে তিন্তা, ধরলার, রত্নাই, সানিয়াজান নদীসহ ছোট বড় নদ-নদীর পানি লালমনিরহাট জেলার ৫টি (লালমনিরহাট সদর, আদিতমারী, কালীগঞ্জ, হাতীবান্ধা, পাটগ্রাম) উপজেলার ৪৫টি ইউনিয়নের মধ্যে ৩২টি ইউনিয়ন বন্যার সর্বগ্রাসী ক্ষয়ক্ষতি থেকে পরিত্রাণ পায়নি। কয়েকদিন যাবৎ এ এলাকাগুলো বন্যা কবলিত। গ্রামবাসী যাপন করছে এক মানবেতন জীবন। খাদ্যের অভাব, পানীয় জলের অভাবের সঙ্গে শুরু হয়েছে ডায়রিয়া, আমাশয়, টাইফয়েডের প্রকোপ। বন্যা বাঙালির জীবনে একটি ভয়াবহ সমস্যা হিসেবে পরিগণিত। এ সমস্যা মোকাবিলা করতে সরকার বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছে। এই সংকটপূর্ণ অবস্থায়, অত্র জেলাবাসীর জীবন রক্ষার্থে অতিশীঘ্রই ত্রাণ সামগ্রী প্রেরণ ও চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ এবং ক্ষতিগ্রস্থ পাট, সবজি, মৎস্যচাষীদের তালিকা তৈরি করে ক্ষতিপূরণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone