শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটে কয়েকদিনের বৃষ্টিপাতে কপাল পুড়ছে মরিচ চাষির! খবর প্রকাশের পর জনস্বার্থে কেটে ফেলা হলো লালমনিরহাটের সেই প্রাচীন বটগাছটির ঝুঁকিপূর্ণ ডাল! লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ২৫সেন্টিমিটার উপরে! লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ১৩সেন্টিমিটার উপরে! লালমনিরহাটে বিদ্যুতের সঙ্গে বন্ধ হয় মোবাইল নেটওয়ার্কও; হতাশায় এলাকাবাসী! লালমনিরহাটে খেলাধুলার মাঠে মাটির স্তূপ! লালমনিরহাটে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উদযাপিত দেশবাসীকে সাপ্তাহিক আলোর মনি’র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা লালমনিরহাটে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা-২০২৪ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে জাতীয় মহাসড়কের ডিভাইডারে ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ড স্থাপন!
দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা লালমনিরহাটে ৫.৫ডিগ্রি সেলসিয়াস

দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা লালমনিরহাটে ৫.৫ডিগ্রি সেলসিয়াস

আলোর মনি ডটকম ডেস্ক রিপোর্ট: তীব্র শীতে জবুথবু হয়ে পড়েছে লালমনিরহাট জেলার ৫টি (লালমনিরহাট সদর, আদিতমারী, কালীগঞ্জ, হাতীবান্ধা, পাটগ্রাম) উপজেলার ৪৫টি ইউনিয়ন ও ২টি (লালমনিরহাট, পাটগ্রাম) পৌরসভার ৪শত ৭৬টি গ্রাম ও ৩শত ৫৪টি মৌজার জনজীবন। মেঘ আর কুয়াশাচ্ছন্ন আকাশে সূর্যের দেখা না মেলায় তীব্র শীত অনুভূত হচ্ছে। লালমনিরহাট জেলার তিস্তা, ধরলা, মালদহ, রত্নাই, স্বর্ণামতি, শিংগীমারী, সানিয়াজান, ত্রিমোহনী, সাকোয়া, মরাসতি, ধোলাই, গিদারী, ছিনাকাটা নদীর চরাঞ্চলগুলোতে হিম বাতাসে শীতের তীব্রতা আরও বেশি। জীবনযাত্রা অনেকটাই স্থবির হয়ে পড়েছে।

 

কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার (কৃষি ও সিনপটিক) সাংবাদিকদের জানায়, আজ রবিবার (৩১ জানুয়ারি) সকালে লালমনিরহাট জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৫দশমিক ৫ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে, যা দেশের সর্বনিম্ন। আগামী বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত আবহাওয়ার খুব একটা উন্নতি হওয়ার সম্ভাবনা কম বলে জানায় প্রতিষ্ঠানটি।

 

উল্লেখ্য যে, আজ কুড়িগ্রামেরও তাপমাত্রা ছিল ৫দশমিক ৫ডিগ্রি সেলসিয়াস।

 

এদিকে, লালমনিরহাট জেলায় বোরো রোপণের ভরা মৌসুম চলায় তীব্র শীত উপেক্ষা করেই মাঠে কাজ করতে বাধ্য হচ্ছেন কৃষক ও দিনমজুর শ্রেণির খেটে খাওয়া সাধারণ মমানুষরা। শৈত্য প্রবাহের মধ্যেই বীজতলা থেকে চারা উত্তোলনসহ কাদা পানিতে নেমে চারা রোপণ করছেন কৃষক ও শ্রমিকরা। শীতে জড়োসড়ো হয়েই কাজে বের হয়েছেন বিভিন্ন পেশার মানুষ।

 

অপরদিকে, সাধারণ মানুষকে দেখা গেছে শীত নিবারনের জন্য খড়, কুটো দিয়ে আগুন তাপাতে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone