শিরোনাম :
সাপ্তাহিক আলোর মনি পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাকে স্বাগতম। # সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের সঙ্গেই থাকুন। -ধন্যবাদ।
না ফেরার দেশে চলে গেলেন সাংবাদিক ফারুক হোসেন

না ফেরার দেশে চলে গেলেন সাংবাদিক ফারুক হোসেন

দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ পত্রিকার কালীগঞ্জ প্রতিনিধি, এশিয়ান টেলিভিশন কালীগঞ্জ প্রতিনিধি, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কাকিনা ইউনিয়ন কমান্ডের কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আলতাফ হোসেন-এঁর দ্বিতীয় পুত্র মোঃ ফারুক হোসেন না ফেরার দেশে চলে গেলেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।
রোরবার (৪ ডিসেম্বর) সকাল ১১টা ৩০মিনিটি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৪০বছর। রাত সাড়ে ৮টায় লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার কাকিনা মহিমারঞ্জন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।
জানা যায়, রোববার (৪ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় কাকিনার শিশু নিকেতন স্কুলে ২পুত্রকে আনতে গিয়ে হঠাৎ বুকে ব্যথায় অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। সেখান থেকে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনারী কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) তে ভর্তি করানো হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ১১টা ৪০মিনিটে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।
তিনি ১কন্যা, ২পুত্র সন্তানের জনক। মৃত্যুকালে তিনি অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি কালীগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের ক্রীড়া, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ছিলেন।
এছাড়াও তিনি সাংবাদিকতার পাশাপাশি রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। তিনি কাকিনা ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। তিনি রাজনীতি করতে গিয়ে একাধিকবার কারাবরণ করেছিলেন তিনি। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কাকিনা ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদকও ছিলেন। সাংবাদিকতা এবং রাজনীতির পাশাপাশি তিনি একজন ভালো ফুটবল খেলোয়াড়ও ছিলেন। তিনি ছিলেন একজন সমাজ সেবী এবং শিক্ষাবিদ। কাকিনা মহিমারঞ্জন স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের সদস্য ছিলেন তিনি। রাজনীতির পাশাপাশি তিনি ব্যবসা পরিচালনা করতেন। গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কাকিনা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন তিনি।
কালীগঞ্জের সকল মহলের কাছে সাহসী ভদ্র এবং বিনয়ী সাংবাদিক ও রাজনীতিবিদ হিসেবে তাঁর পরিচিতি ছিল। তাঁর মৃত্যুতে লালমনিরহাটের বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও সাংবাদিক সংগঠনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা। তাঁকে হারিয়ে স্তব্ধ তাঁর পরিবার এবং সাংবাদিক সমাজ। তাঁর এই অকাল মৃত্যু মানতে পারছে না কেউই।
ফারুকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকসন্তোপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছে উত্তরবঙ্গ প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সংবাদটি শেয়ার করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design & Developed by Freelancer Zone